Amar Praner Bangladesh

ঢাকা-১৯ আসনে ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী ডা. দেওয়ান সালাউদ্দিন

 

 

মোল্লা তানিয়া ইসলাম তমাঃ

 

ঢাকা-১৯ আসনের ঐক্য ফ্রন্টের প্রার্থী ডা. দেওয়ান সালাউদ্দিন বাবু । সকল জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে সেই কাঙ্খিত চিঠিটি মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৭টারদিকে হাতে পেয়েছেন, বিএনপি সভানেত্রীর বিশ্বস্ত ও পরিক্ষিত নেতা, ঢাকা জেলা বিএনপি’র সভাপতি সাবেক এমপি ডা. দেওয়ান মো: সালাঊদ্দিন বাবু ।

একাদশ জাতীয় নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর অনেকে ঢাকা-১৯ (সাভার-আশুলিয়া) আসনে সংঘবদ্ধ প্রচারণা চালিয়েও ডা. দেওয়ান সালাউদ্দিন বাবুর মনোনয়ন ঠেকাতে পারেননি ডা. দেওয়ান সালাউদ্দিন বাবুর বিরোধীরা । ঐক্যফ্রন্টের তীর্ণমুল একাধিক নেতাকর্মী জানান, স্থানীয়দের দাবি দাওয়া সম্বলিত একাধিক পর্যবক্ষেণ নিয়ে কাজ করেছে জরিপ সংস্থা ও ঐক্য ফ্রন্টের বিচক্ষণ নিতি নির্ধারকরা ।

যানাযায়, এসব জরিপের তথ্যমতে স্থানীয় যারা মনোনয়ন দাবি করছেন- তারা কেউ এখনো এমপি হওয়ার যোগ্যতা অর্জন করতে পারেননি বলে রিপোর্টে উঠে আসে । তাছাড়া এসব মনোনয়ন প্রত্যাশী তৃণমূলেও সর্বাধিক গ্রহণযোগ্য নয় । জরিপে উঠে আসে, সাবেক এমপি ডা. দেওয়ান মো: সালাঊদ্দিন বাবু সার্বজনীন গ্রহণযোগ্য একজন ব্যাক্তি ।

সাবেক এমপি ডা. দেওয়ান মো: সালাঊদ্দিন বাবুর মনোনয় পাওয়ার বিষয়ে স্থানীয় তীর্ণমুল অসংখ্য নেতাকর্মী এই প্রতিবেদককে বলেন, সালাঊদ্দিন বাবু নমিনেশন পেয়েছেন এতে আমরা আনন্দিত । এখন আমাদের দায়িত্ব হচ্ছে সকলে মিলে ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী ডা. দেওয়ান সালাউদ্দিন বাবুকে বিজয়ী করে ওনাকে সংসদে পাঠানো । এজন্য আমরা দৃঢ় প্রতিজ্ঞ বদ্ধ ।

সবাইকে নিয়েই নির্বাচনের মাঠে থাকবো আমরা। কে কি করলো, এটা দেখে সময় নষ্ট না করে ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থীকে বিজয়ী করে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া, বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের হাতকে শক্তিশালী করাই হবে আমাদের একমাত্র লক্ষ্য। আমরা আগেও বলেছিলাম ডা. দেওয়ান সালাউদ্দিন বাবু নমিনেশন পাবেন । হয়েছেও তাই। এখন আমরা ঐক্যবদ্ধভাবে মাঠে নেমে তার তথা ঐক্যফ্রন্টের বিজয় সুনিশ্চিত করবো ।