Amar Praner Bangladesh

তুরাগে পারিবারিক কলহের জেরে এক যুবকের আত্মহত্যা

 

 

মনির হোসেন (শিশির) :

মঙ্গলবার (২৩ আগষ্ট) রাতে রাজধানী তুরাগের দলিপাড়া এলাকায় এক ভাড়াটিয়া বাড়িতে তৌহিদুল ইসলাম( ২৪) নামে এক যুবক গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

নিহত তৌহিদুল ইসলাম ময়মনসিংহ জেলার ভালুকা থানার বরই গ্রামের মোঃ আব্দুল জলিলের ছেলে। তিনি ওই এলাকার খাদিজা আক্তার এর বাড়ির ভাড়াটিয়া ছিলেন।

সে পেশায় একজন রেন্ট-এ-কার এর ব্যবসা করতেন । যাহার নাম্বার ঢাকা মেট্রো চ-১৯-৬২৯৭। নিহত তৌহিদুল ইসলাম প্রায় ৭/৮ মাস পূর্বে প্রেমের সম্পর্কের মাধ্যমে বিয়ে করেন সুমাইয়া আক্তার ঋতুকে, এবং স্বামী স্ত্রী আলাদা বসবাস করতেন । নিহতের স্ত্রী মোছাঃ সুমাইয়া আক্তার রিতু, স্পেশাল সিকিউরিটি প্রোটেক্ট ব্যাটালিয়নের একজন মহিলা কনস্টেবল। তিনি মোহাম্মদপুরে শাহজালাল হাউজিং পুলিশের ব্যারাকে থাকতেন। এবং প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে ডিউটি করতেন। ঋতু মাঝে মাঝে উত্তরা আসতেন এবং স্বামীর সাথে থাকতেন।

পুলিশ ও নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, রাত সোয়া ৮ টায় তৌহিদুল ইসলাম( ২৪) নামে পারিবারিক কলহের জের ধরে এক ভাড়াটিয়া বাসায় রুমের ভিতর ফ্যানের সাথে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে। পরে ঘরে তার ঝুলন্ত লাশ দেখতে পেয়ে পরিবারের লোকজন পুলিশ কে খবর দিলে পুলিশ তার লাশ ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছে।
নিহত তৌহিদুল ইসলাম ফেসবুক মেসেঞ্জার চ্যাট এবং পরিচিতজনদের মাধ্যমে জানা যায় যে, স্বামী স্ত্রীর মধ্যে মনোমালিন্যের কারণেই এই আত্মহত্যার ঘটনা ঘটে।

তুরাগ থানার ওসি মেহেদি হাসান জানান, মৃত দেহের সুরতহাল শেষে লাশ ময়নতদন্তের জন্য শহীদ সোহরওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়। এ ব্যাপারে থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।