Amar Praner Bangladesh

দক্ষিনখানে বি-এলার্ট সিকিউরিটি সার্ভিস নামে প্রতারণা, ভবন কর্তৃপক্ষের সাথে সংঘর্ষ – আহত ৪

 

 

রবিউল আলম রাজুঃ

 

রাজধানী দক্ষিনখানের আজমপুর কাঁচা বাজার হাসান মাহমুদ কমপ্লেক্স মার্কেটের ৩য় তলায় বি-এলার্ট সিকিউরিটি নামে একটি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে প্রতারণা ব্যবসার অভিযোগ উঠেছে।

কমপ্লেক্স মার্কেটের মলিক হাসান মাহমুদ প্রতিষ্ঠানটির প্রতারণা বন্ধ ও মার্কেট থেকে অফিস সরানোর বারবার নোটিশ জারি করলে বি-এলার্টের মালিক রিয়াজুল হক গতকাল দুপুরে অজ্ঞাত কয়েকজন ব্যক্তিদের নিয়ে মার্কেটে হামলা চালায়। এতে হাসান মাহমুদের ভাই মোতালেব মৃধাসহ রুবেল, রিপন ও নাসির নামে ৩ জন কর্মচারি মারাত্বক আহত হওয়ার তথ্য পাওয়া গেছে।

সরেজমিন অনুসন্ধানে জানা যায়, বি – এলার্ট সিকিউরিটি লিঃ নামক প্রতিষ্ঠানটি দীর্ঘদিন যাবৎ হাসান মাহমুদ কমপ্লেক্স মার্কেটের ৩য় তলায় এলিট সিকিউরিটি ফোর্স নিয়োগের নামে প্রতারণা চালিয়ে আসছে। অফিসটি বন্ধ করতে র‌্যাব এ পর্যন্ত ৩ বার অভিযান দিয়ে বি- এলার্টের কর্মকর্তা কর্মচারিদের জেলে পাঠালেও জেল থেকে বের হয়ে পুনরায় তারা প্রতারণা ব্যবসা শুরু করেন বলে অভিযোগ এলাকাবাসির।

এলাকাবাসি সূত্রে জানা যায়, প্রতারণা প্রতিষ্ঠান বি এলার্ট এর মালিক রিয়াজুল হক ও আনোয়ারা খানম আলো নামে স্বামী স্ত্রী দুই জন। তারা প্রত্যন্ত গ্রামে মার্কেটিং ম্যানাজার নামে নিজস্ব লোক নিয়োগ দিয়ে অল্প বয়সী কলেজ পড়–য়া ছাত্রদের চাকরির নামে ঢাকায় নিয়ে আসেন।

এরপর ভালো চাকরির নামে প্রত্যেকের কাছ থেকে ২০ হাজার হতে লক্ষাধিক টাকা পর্যন্ত নিয়ে থাকেন। পরে ভূক্তভোগীদের মারধর করে পাঠিয়ে দেওয়া হয়।

সরেজমিনে বি-এলার্ট প্রতিষ্ঠানটি ঘুরলে দেখা মিলে তাদের প্রতারণার ফাঁদ। প্রতিষ্ঠানটিতে চাকরি প্রত্যাশীদের বয়স ১৬ থেকে ২৫ এর মধ্যে। তাদের প্রত্যাকের কাছ থেকে শুধু জামানত ফরম পূরণ বাবদ নেওয়া হয়েছে ৩ থেকে ৫ হাজার পর্যন্ত।

প্রতিষ্ঠানটির ভেতরে দেখা যায়, সাইফুল নামে ১৭ বছর বয়সী একটি ছেলে সিকিউরিটি ফোর্স ইউনিফর্ম পরিধান করে হাতে কালো ওয়ারলেস নিয়ে দাড়িয়ে আছে। এর পাশেই প্রায় অর্ধশতাধিক কিশোর কিশোরীকে মার্কেটিং শেখানো হচ্ছে, তারা কিভাবে নিজ এলাকার ছেলে মেয়েদের চাকরির নামে এখানে নিয়ে আসবে। অফিসটির কয়েকটি কক্ষে দেখা যায়, বিভিন্ন জেলা হতে আগত চাকরি প্রত্যাশিদের ভূয়া তথ্য দিয়ে চাকরির স্থান , বেতন ও সুযোগ- সুবিধা বুঝানো হচ্ছে, যার পুরোটাই প্রতারণা।

শহিদুল নামে এক ভূক্তভোগীর সাথে কথা হলে তিনি প্রতিবেদককে বি -এলার্ট নামক একটি ফেসবুক আইডি দেখান। যে আইডিতে শত শত কিশোর কিশোরিদের অভিযোগ, কান্না ও সীমাহিন দুঃখের তথ্য পাওয়া যায়।

 

এ বিষয়ে কমপ্লেক্স মার্কেটটির মালিক হাসান মাহমুদ মৃধার সাথে কথা হলে তিনি প্রতিবেদককে বলেন, রিয়াজ ও আলো আমার মার্কেটে অফিস ভাড়ার নামে প্রতারণা ব্যবসা খুলে বসেছে। আমি এসব ব্যবসা বন্ধ করতে বারবার তাগিদ দিয়েছি, কিন্তু তারা ব্যবসা আরো প্রসারিত করছে। দৈনন্দিন দেখা যায়, মার্কেটের সামনে কিশোর কিশোরিরা কান্নাকাটি করছে। প্রশ্ন করলে তারা বলেন, প্রতারণা করে বি- এলার্ট চাকরির নামে তাদের টাকা হাতিয়ে নিয়েছে।

আমি গত কয়েক মাস যাবৎ বি- এলার্ট এর মালিক রিয়াজকে মার্কেট ছাড়ার জন্য নোটিশ দিয়ে চাপ প্রয়োগ করে আসছি, কিন্তু তারা কিছুতেই মার্কেট ছাড়ছে না। আজকে তাদের অফিস মার্কেট থেকে সরানোর কথা ছিল।

গতকাল থেকে তারা অফিস না সরানোর জন্য বিভিন্ন কৌশল তৈরী করছে। রাত্রে রিয়াজ আামর মার্কেটে অজ্ঞাত লোকজন নিয়ে হামলা করে, এতে আমার ভাইসহ ৩জন কর্মচারি আহত হয়। আমি থানায় অভিযোগ দিয়েছি।

এ বিষয়ে দক্ষিনখান থানা অফিসার ইন্চার্জ মুহাম্মদ মামুনুর রহমান বলেন, আমি ঘটনা শুনে গতকাল রাত্রে ফোর্স পাঠিয়েছিলাম। অভিযোগ আসলে মামলা গ্রহন করবো।