Amar Praner Bangladesh

নওয়াজকে ক্ষমতা ছাড়তে বাধ্য করেছেন ৫ ব্যক্তি!

পাকিস্তানের রাজনীতেতে আলোচনার কেন্দ্রে এখন সদ্যবিদায়ী প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ। সর্বোচ্চ আদালত দায়িত্ব পালনে অযোগ্য ঘোষণার পর পদত্যাগ করেন তিনি।

তবে এক্ষেত্রে ৫ ব্যক্তি তাঁকে ক্ষমতা ছাড়তে বাধ্য করেছেন বলে জানিয়েছেন সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী।

গতকাল লাহোরের দাতা বারবার এলাকায় এক সমাবেশে তিনি বলেন, লাখো মানুষ আমাকে ভোট দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বানিয়েছে আর মাত্র পাঁচজন লোক আমাকে সেই পদ ছাড়তে বাধ্য করেছে। ইসলামাদ থেকে লাহোরমুখী চার দিনব্যাপী লং মার্চের গতকালই ছিল শেষ দিন। কর্মসূচির সর্বশেষ ভাষণে সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী অভিযোগ করে বলেন, দেশের ইতিহাসে একজন প্রধানমন্ত্রীকেও ক্ষমতার মেয়াদ পূর্ণ করতে দেয়া হয়নি। ষড়যন্ত্র করে সবাইকে পদ থেকে সরিয়ে দেয়া হয়েছে।

এসময় নওয়াজ শরিফ বলেন, ‘সব প্রধানমন্ত্রীকেই সরিয়ে দেয়া হয়েছে, সবাই কি দুর্নীতিগ্রস্ত ছিলেন?’ নওয়াজ জাতির কাছে জানতে চান, স্বৈরশাসকেরা যে পাকিস্তানের ৩০টি বছর খেয়ে ফেলেছে তাদের কি কখনো জবাবদিহি করা হবে? প্রধানমন্ত্রীদের প্রতি এসব পদক্ষেপের বিরুদ্ধে কঠোর হতে সমর্থকদের প্রতি আহ্বান জানান পাকিস্তান মুসলিম লিগের (এন) এই নেতা। তিনি আরও বলেন, ‘পৃথিবীতে পাকিস্তানের মতো এমন দেশ আর নেই, যেখানে জনগণের ভোটের কোনো মূল্য নেই’।

এদিকে একই সমাবেশে দেয়া বক্তৃতায় নওয়াজ শরিফের ভাই ও পাঞ্জাব প্রদেশের মুখমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ বলেছেন, এই সমাবেশে তরুণ সমাজের স্বতঃস্ফূর্ত উপস্থিতিই প্রমাণ করে ইমরান খান ভুল পথে হাঁটছেন। তিনি বলেন, ‘আমাদের বিরুদ্ধে কোনো দুর্নীতির প্রমাণ পাওয়া যায়নি’।

ইসলামাবাদ থেকে শুরু হওয়া লং মার্চে বিভিন্ন স্থানে যাত্রাবিরতি করে বক্তৃতা দিয়েছেন নওয়াজ শরিফ। এসব বক্তৃতায় তিনি জনগণের সমর্থন চেয়েছেন। পাশে থাকার জন্য ধন্যবাদ দিয়েছেন কর্মী-সমর্থকদের।