নগরীতে বিদুৎ এর ঝুলন্ত তার : প্রাণহানির আশংকা

রংপুর প্রতিনিধি:

রংপুর মহানগরের নিউজুম্মাপাড়া এলাকায় ক্যাপ্টেন সড়কে দির্ঘদিন থেকে ঝুলে আছে দুই ফেইজের চারটি বৈদ্যুতিক তার। এলাকাবাসীর দাবী দির্ঘদিন থেকে বার বার লিখিত অভিযোগ করেও কোন সমাধান হচ্ছে না।

 

রংপুর মহানগরের উত্তর এলাকা নিউ জুম্মাপাড়া।  সিটি বাজার, সুপার মার্কেট, নবাবগঞ্জবাজার সহ অন্যান্য মার্কেটের ব্যবসায়িদের একটি বড় অংশ এ এলাকার বাসিন্দা এবং তারা এ সড়ক দিয়েই চলাচল করেন। ব্যস্ততম এ সড়কের একটি শাখা সড়কের নাম ক্যাপ্টেন রোড, আবাসিক এলাকা হওয়ায় এখানে বসবাস করেন সরকারি চাকুরিজীবি, ব্যবসায়িসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুজন, তাদের স্কুল কলেজ পড়–য়া শিক্ষার্থীসহ এলাকার সব বয়সী ছেলে মেয়েদের চলাচল এ সড়ক দিয়ে। ক্যাপ্টেন সড়কের দুটি বৈদ্যুতিক পিলার দীর্ঘদিন ধরে পরস্পরের দিকে ঝুঁকে পড়ার কারনে হাই ভোল্টেজের তারগুলো ঝুলে গেছে। তারগুলো ঝুলে মাটির এতো কাছে এসেছে যে এলাকাবাসি আশংকা করছেন যে কোনো সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনা এমন কি প্রাণ হানির মত দূর্ঘটনা ঘটতে পারে। ঐ সড়ক দিয়ে বড় যানবাহন চলাচল না করলেও রিকসা, অটো রিকসা চলাচল করে নিয়মিত।

 

 

একাধিক রিকসা চালক জানান, এ সড়ক দিয়ে চলাচল করলে অনেক

ভয় লাগে। কেননা তারগুলে রিকসার সাথে ঘষা লাগে। অটো চালক আ: রহিম বলেন, আমি জানি এখানে তার ঝুলে আছে জানলে আসতাম না। যাত্রীর কথামত সাহস করে ঐ সড়কদিয়ে যাই। তিনি আরও বলেন, যদিও তারগুলো রাবারে মোড়ানো কিন্তু তার চুরি করতে গিয়ে দুর্ঘনা ঘটতে পারে অথবা দুষ্টু ছেলেপেলেরা দুষ্টামি করতে গিয়েও সমস্যায় পড়তে পারে। এছাড়াও অটো কিংবা রিকসায় লেগে যদি তারের রাবার লিক করে তাহলে নিশ্চিত যাত্রীসহ চালকের মৃত্যু হবে।

 

ঝুলন্ত তারের অপর খুটির পাশে বাড়ি মৃত মাসুদ খানের। তার স্ত্রী লিলিমা পারভীন খান বলেন, কাউন্সিলরসহ পিডিবি অফিসে কয়েকদফা লিখিত অভিযোগ করে কোন কাজ হচ্ছে না। আমার পরিবারসহ অনেকে ভয়ে ঐ সড়ক দিয়ে চলাচল করে না। তিনি আক্ষেপ করে বলেন, এখানে প্রাণহানি ঘটলে তারপর হয়তো কর্তৃপক্ষের টনক নড়বে।

 

এ ব্যাপারে স্থানীয় ২৩ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর জনাব সেকেন্দার আলী বলেন, বার বার অনুরোধ করলেও পিডিবি কোনো ব্যবস্থা গ্রহন করছে না। এ ব্যাপারে নগরীর শাপলা এলাকায় বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নায়ন র্বোড অফিসের নির্বাহী প্রকৌশলী দেলোয়ার হোসেন বলেন, এ বিষয়ে আমার জানা ছিল না ঠিক আছে আমি প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করছি।

 

স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবী অতিদ্রুত এবং দুর্ঘটনা ঘটার আগেই সমস্যা সমাধানে পিডিবি কর্তৃপক্ষ যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহন করবেন ।