নাজমুল হাসান বঙ্গবন্ধুর আর্দশের সৈনিক হয়ে আহবান জানায় স্বাধীনতার উজ্জ্বল বার্তার

 

 

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার একান্ত আস্থাভাজন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের বর্ষিয়ান রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব রাজধানী উত্তরার কৃতি সন্তান সুনামধন্য চেয়ারম্যান আবুল হাসেমের যোগ্য সন্তান যুবলীগের অন্যতম নেতা জনাব নাজমুল হাসান বঙ্গবন্ধুর আর্দশের সৈনিক হয়ে আহবান জানায় স্বাধীনতার উজ্জ্বল বার্তার।

বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ এর আদর্শে সকলকে একত্রিত হয়ে কাজ করার আহবান জানিয়েছেন। আমাদেরকে সংযম ও ধৈর্য্যের শিক্ষা নিয়ে দেশ প্রেমে উদ্বুদ্ধ হতে হবে। সারা দেশ ব্যাপি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যে উন্নয়ন এর কাজ শুরু করেছেন তার হাতকে আরো বলিষ্ট করার প্রত্যয়ে সবাইকে এগিয়ে আসার আহবান জানান, দৈনিক আমার প্রাণের বাংলাদেশের সাথে একান্ত সাক্ষাতকারে তিনি আরো বলেন মানুষ চায় কাজ, চায় উন্নতি, চায় অন্ন, বস্ত্র, বাসস্থানের গ্যারান্টি, চায় নিরাপত্তা, যা এই সরকার দিতে বদ্ধপরিকর। আপনারা জানেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী মাদক নির্মূলে ও জঙ্গি দমনে এমনকি করোনা মহামারী এবং বন্যা মোকাবেলায় তার বলিষ্ঠ ভূমিকায় এসব দূর্যোগকে আল্লাহ্র রহমতে অনেকটাই দমিয়ে আনতে সক্ষম হয়েছেন।

নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের দামকে নিয়ন্ত্রণে রেখে মানুষের জীবন-যাপনকে অনেকটাই সহজ করে দিয়েছেন। আপনারা দেখছেন দেশ কিভাবে এগিয়ে যাচ্ছে আমাদের উচিত যে যেখানে আছে তার ক্ষমতা, তার সামার্থ অনুযায়ী দেশের এই উন্নয়নে এগিয়ে আসা, সবকিছুর পাশাপাশি এই মহামারীর মধ্যেও প্রধানমন্ত্রীর বিচক্ষণ বুদ্ধিমত্তায় অনলাইনের মাধ্যমে পাঠদান করে শিক্ষার্থীদেরকে লেখাপড়ার প্রতি আগ্রহ ধরে রাখার প্রয়াসকে আধুনিক ডিজিটাল বাংলাদেশের একটি ভবিষ্যৎ রূপরেখাকে ফুটিয়ে তুলেছেন। যা সর্বজন প্রশংসিত একটি বিষয়। আবার সাথে সাথে খেয়াল রাখতে হবে ষড়যন্ত্রকারীরা যেন দেশের কোন ক্ষতি করতে না পারে । জাতির জনক বঙ্গবন্ধু কখনো নিজের জন্য ভাবেন নাই ।

তার সারাটি জীবনই কেটেছে এই দেশের স্বাধীনতা ,উন্নয়ন আর জনগনের মুক্তির প্রত্যাশায়। এখন তার যোগ্য কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যেভাবে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। মহান আল্লাহ্ যেন মায়া-মমতায় ভরা দেশের অবিভাবক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার শরীর স্বাস্থ্য ভালো রাখেন এবং তার অসমাপ্ত সকল কাজ সমাপ্ত করে দেশকে তার মনের মাধুরী দিয়ে সাজিয়ে যেতে পারেন। যারাই দেশকে ভালোবাসে তারাই আওয়ামীলীগ করে। নাজমুল হাসান আরেকটি প্রশ্নের জবাবে আরো বলেন, যেখানেই ভালো সেখানেই মন্দের আগমন ঘটে আপনি ভালো কাজ করেন শয়তান আপনাকে ধোকা দিবে ।

বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের উন্নয়নের জোয়ারে কিছু হাইব্রিট নেতা মুখোশধারী ফায়দা হাসিলকারী দুষ্টলোক আওয়ামীলীগে প্রবেশ করেছে। এরা কখনই বঙ্গবন্ধুর আদর্শের- মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মতাদর্শের নেতা কর্মি হতে পারে না। এরা এসেছে অন্যদল থেকে নিজেদের ফায়দা হাসিল আর ষড়যন্ত্র করার মন মানুষিকতা নিয়ে।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বাছাই প্রক্রিয়াও শুরু করেছেন। গরীব-দুঃখি মানুষের বন্ধু জনদরদী, সমাজসেবক শিক্ষামন্ত্রী মোঃ জাকির হোসেন তার বর্নাঢ্য জীবনে জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ন্যায়নীতির উপর শতভাগ আস্থারেখে মানুষের কল্যানে দেশের উন্নয়নে স্বাধীনতার স্বপক্ষে কাজ করে যাচ্ছেন।

প্রধানমন্ত্রীর সততা, ধৈর্য্য আর দেশপ্রেমে মননশীল চিন্তায় মুগ্ধ হয়ে নাজমুল হাসান ঐতিহাসিক দল বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের দেশগড়ার রাজনীতির সাথে আগামী দিনের পথ চলায় সকলকে স্বাগতম জানিয়ে দেশ গড়ার কাজে নিজেকে উৎসর্গ করার ঘোষনা দিয়েছেন। দেশগড়ার এই আঙ্গিনায় নিজেকে একজন সফল সৎ ও ব্যক্তিত্ব সম্পন্ন মানুষ হিসেবে এবং রাজনৈতিক ভাবে ভবিষ্যৎ প্রজন্মের কাছে যুব সমাজের একটি আদর্শিক দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে তার দেশগড়ার গঠনমূলক কাজের মধ্য দিয়ে। ব্যক্তিগত ভাবে তিনি বন্ধুবৎসল, সৎ ও সদাহাস্যোজ্জ্বল একজন ব্যক্তিত্ব।