Amar Praner Bangladesh

নান্দাইলে মিথ্যা অপপ্রচারের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন

 

 

ফজলুল হক ভুইয়া, ময়মনসিংহ প্রতিনিধিঃ

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও বিভিন্ন অনলাইন, প্রিন্ট সংবাদপত্রে নান্দাইল উপজেলার জাহাঙ্গীরপুর ইউনিয়নের উত্তর জাহাঙ্গীরপুর গ্রামে মালিকানাধীন একটি দোকান ভাংচুরের ভিডিও সংবাদ প্রচারের প্রতিবাদে এবং নিরপেক্ষ তদন্তের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছে ভুক্তভোগী পরিবার। শনিবার (৬ আগষ্ট) বিকাল ৪ টায় উপজেলা জাহাঙ্গীরপুর গ্রামে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য পাঠ করেন আব্দুস ছালামের বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া কন্যা সাথী আক্তার। বক্তব্যে তিনি বলেন, আমার বাবা ৫ বছর ধরে অসুস্থ। অসুস্থ থাকায় আমারা দুই বোন ও ১ ভাইয়ের পড়াশোনার খরচ বহন কষ্টসাধ্য হয়ে পড়ে। এ অবস্থায় আমাদের খরচ জোগাতে সীডস্টোর বাজারের পূর্ব পাশে পুকুরের পৈত্রিক ৬ শতাংশ জমির মধ্যে ২ শতাংশ জমি বিক্রি করার সিদ্ধান্ত নেই। এব্যাপারে আমার চাচা আব্দুস ছাত্তার কে জানালে তিনি ক্রয় করবেন না বলে জানান। পরে একই গ্রামের ইতালি প্রবাসী দুলাল মিয়ার স্ত্রী মোমেনা খাতুনের নিকট ২ শতাংশ জমি ১৮ লক্ষ টাকায় বিক্রি করি।

গত বৃহস্পতিবার মোমেনা খাতুনের নিকট জমি বুঝিয়ে দিতে গেলে আমার আপন চাচা আব্দুস ছাত্তার ও চাচাতো ভাই আব্দুল মজিদ, জনাব আলীর পুত্র আব্দুল হেকিম, আব্দুল হেলিম, আব্দুস ছোবানের পুত্র আব্দুল শহীদ, আব্দুল ফরিদ,আব্দুল রাশিদ, আব্দুল হেকিমের পুত্র জাহাঙ্গী আলম, আলমগীর হাসান ও আব্দুল শহীদের পুত্র রিটন মিয়া পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে আমাদের পৈতৃক বিক্রি করা সম্পত্তিতে বাঁধা প্রদান করেন করেন।

এক পর্যায়ে আমার চাচা আব্দুস ছাত্তার ও চাচী হেনা আক্তারকে দিয়ে মিথ্যা অভিনয় করিয়ে তৃতীয় পক্ষ আব্দুল হেকিমের কন্যা নুরুন্নাহার ও এস নাহার মোবাইল ফোনে ভিডিও ধারন করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছেড়ে দেয়। গত ৪ ও ৫ আগষ্ট সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকৃত তথ্য ছাড়া ভিডিওটি ভাইরাল হয় এটি সম্পূন্ন মিথ্যা ও পরিকল্পিত। এতে জমি ক্রয় করা মোমেনা খাতুনের পরিবারের কেউ সম্পৃক্ত না। আমার জমি ক্রেতার নামে থানায় মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করতেছে। আমি এ ব্যাপারে নিরপেক্ষ তদন্তের দাবি করছি।

সংবাদ সম্মেলনে এব্যাপারে বক্তব্য রাখেন, মো.আব্দুস ছালাম, মোছা.মোসলেমা খাতুন, ও মোমেনা খাতুন। এসময় উপস্থিত ছিলেন জাহাঙ্গীরপুর ইউনিয়নের উত্তর জাহাঙ্গীরপুর গ্রামের গণমান্য ব্যক্তিবর্গ।