শুক্রবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২৩, ০৯:১৫ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
সৌদিতে পাচারকালে ৩০ লক্ষ ইয়াবা ট্যাবলেট আটক, গ্রেফতার ২ রাজশাহীর বানেশ্বর-পাবনার ঈশ্বরদী সড়কের নির্মাণ কাজে গতি নেই নীলফামারী ডোমারে ওয়াজ মাহফিল থেকে ফেরার পথে প্রতিবন্ধী কিশোরীকে ধর্ষণ, ধর্ষক গ্রেফতার অভাবে বিক্রি করে দেওয়া নবজাতক শিশুকে মায়ের কোলে ফিরিয়ে দিলেন টঙ্গী পূর্ব থানা পুলিশ টঙ্গীতে জাতীয় পর্যায়ে শিশু কিশোর ক্রীড়া প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন: যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী শেরপুরে ৬ কেজি গাঁজাসহ ২ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার কুমিল্লা আইএইচটি এন্ড ম্যাটস-এ স্বরস্বতী পূজা উদযাপন রাজধানী শ্যামলী আদাবর থানার অন্তর্গত হোটেল বৈশাখীতে চলছে অসামাজিক কার্যকলাপ চার পুলিশ কর্মকর্তার অতিরিক্ত আইজিপি পদে পদোন্নতি গাজীপুর জেলা কৃষকলীগের সহ সভাপতি মোঃ আজহার আলী বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক

নারায়ণগঞ্জের চাঞ্চল্যকর ৭ খুন : নূর হোসেন ও তারেক সাঈদসহ ১৫ আসামির মৃত্যুদণ্ড বহাল

Reporter Name
  • Update Time : মঙ্গলবার, ২২ আগস্ট, ২০১৭
  • ৫৩ Time View

নারায়ণগঞ্জের চাঞ্চল্যকর ৭ খুন মামলায় নিম্ন আদালতের দেওয়া মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ২৬ জনের মধ্যে নূর হোসেন, তারেক সাঈদ, আরিফ হোসেন, মাসুদ রানাসহ ১৫ আসামির ফাঁসির আদেশ বহাল রেখেছেন হাইকোর্ট। এছাড়া বাকি ১১ ফাঁসির আসামির সাজা কমিয়ে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার বিকালে বিচারপতি ভবানী প্রসাদ সিং ও বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলামের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

এর আগে, মামলার শুনানি শেষে গত ২৬ জুলাই রায় ঘোষণার জন্য গত ১৩ আগস্ট দিন ধার্য করে আদেশ দিয়েছিল আদালত। পরে ওইদিন আদালত রায় ঘোষণার তারিখ পিছিয়ে ২২ আগস্ট আসামিদের নিয়মিত ও জেল আপিল এবং ডেথ রেফারেন্সের ওপর রায়ের দিন ধার্য করেন।

গত ২২ মে ৭ খুন মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিদের ডেথ রেফারেন্স ও আপিলের শুনানি শুরু হয়। মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিদের মধ্যে নূর হোসেন, তারেক সাঈদ, আরিফ হোসেন, মাসুদ রানা, এমদাদুল হক (হাবিলদার), বেলাল হোসেন, আবু তৈয়ব, শিহাব উদ্দিন, এসআই সুনেন্দু বালা, পূর্ণেন্দু বালা, আসাদুজ্জামানূর, মূর্তজা জামান চার্চিল, আলী মোহাম্মদ, মিজানুর রহমান বিপু, আবুল বাশার ও রহমত আলীসহ ২০ আসামি হাইকোর্টে নিয়মিত আপিল ও জেল আপিল করেন।

প্রসঙ্গত, ২০১৪ সালের ২৭ এপ্রিল বেলা দেড়টার দিকে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোড থেকে অপহৃত হন নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর নজরুল ইসলাম, আইনজীবী চন্দন সরকারসহ সাতজন। তিন দিন পর ৩০ এপ্রিল শীতলক্ষ্যা নদীতে একে একে ভেসে ওঠে ছয়টি লাশ। পরদিন মেলে আরেকটি লাশ। নিহত অন্যরা হলেন- নজরুলের বন্ধু মনিরুজ্জামান স্বপন, তাজুল ইসলাম, লিটন, গাড়িচালক জাহাঙ্গীর আলম ও চন্দন সরকারের গাড়িচালক মো. ইব্রাহীম।

ঘটনার একদিন পর কাউন্সিলর নজরুলের স্ত্রী সেলিনা ইসলাম বাদী হয়ে নূর হোসেনসহ ছয়জনের নাম উল্লেখ করে ফতুল্লা মডেল থানায় মামলা করেন।

মামলায় চলতি বছরের ১৬ জানুয়ারি নারায়ণগঞ্জের জেলা ও দায়রা জজ আদালত রায় দেন। রায়ে র‌্যাবের সাবেক ১৬ কর্মকর্তা-সদস্য এবং নারায়ণগঞ্জের সাবেক ওয়ার্ড কাউন্সিলর নূর হোসেন ও তাঁর নয় সহযোগীসহ মোট ২৬ জনের মৃত্যুদণ্ডাদেশ দেন আদালত। এ ছাড়া মামলার আরও ৯ আসামিকে বিভিন্ন মেয়াদে সশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category