Amar Praner Bangladesh

নেত্র নিউজ ও সাবেক সেনা কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বরিশালে ডিজিটাল আইনে মামলা

 

 

গাজী আরিফুর রহমান, বরিশাল :

 

রাষ্ট্রবিরোধী অপপ্রচারের অভিযোগে সুইডেনভিত্তিক অনলাইন পোর্টাল ‘নেত্র নিউজ’ ও সাবেক সেনা কর্মকর্তা মো. হাসিনুর রহমানের বিরুদ্ধে বরিশালে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা হয়েছে।

মঙ্গলবার ( ৩০ আগস্ট ) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বরিশাল মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মনিরুদ্দিন আহম্মেদ ওরফে তারেক বাদী হয়ে বরিশাল সাইবার ট্রাইব্যুনাল আদালতে মামলাটি এ মামলাটি দায়ের করেন।

আদালতের বিচারক গোলাম ফারুক মামলাটি আমলে নিয়ে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগকে (সিআইডি) তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। আদালতের বেঞ্চ সহকারী মো. নুরুল ইসলাম এ বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

মামলার বাদী পক্ষের আইনজীবী গোলাম সরোয়ার সাংবাদিকদের বলেন, মামলার প্রধান আসামি হাসিনুর রহমান সাবেক সেনা কর্মকর্তা। তিনি সরকারের বিরুদ্ধে অপপ্রচারের উদ্দেশ্যে ইউটিউবে বিভিন্ন ধরনের মিথ্যা বক্তব্য দিয়ে দেশে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টির পাঁয়তারা করছেন। এর বিচার চেয়ে মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মনিরুদ্দিন আহম্মেদ বাদী হয়ে সাইবার ট্রাইব্যুনালে মামলাটি করেছেন।

মামলার আরজিতে উল্লেখ করা হয়, মামলার ১ নম্বর আসামি সাবেক সেনা কর্মকর্তা হওয়া সত্ত্বেও রাষ্ট্র ও সরকারবিরোধী নানা কর্মকাণ্ডে জড়িত থেকে ‘‌নেত্র নিউজ’ নামের একটি ওয়েবসাইট ও ফেসবুক পেইজে মিথ্যা ও মানহানিকর ভিডিও প্রচার করে আসছেন। ছড়িয়ে পড়া ওই ভিডিওতে রাষ্ট্র, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ও সরকারের বিরুদ্ধে নানা অপপ্রচার চালানো হয়েছে। এ ধরনের অপপ্রচার দেশের স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব, বীর মুক্তিযোদ্ধা ও জনসাধারণের অনুভূতিতে আঘাত হেনেছে।

মামলার সময় মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এবং জেলা ও দায়রা জজ আদালতের সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) এ কে এম জাহাঙ্গীর, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তালুকদার মো. ইউনুস, জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি লস্কর নুরুল হক ও সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এ কে এম জাহাঙ্গীর বলেন, একটি পক্ষ রাষ্ট্র ও সরকারের বিরুদ্ধে বিভিন্নভাবে ষড়যন্ত্র করছে। চক্রটি দেশবিরোধী বিভিন্ন অপকর্মে লিপ্ত। অপশক্তিটি বিদেশে লুকিয়ে থেকে দেশের সার্বভৌমত্ব, স্বাধীনতা, উন্নয়ন ও জাতীয় নেতাদের নিয়ে কটূক্তি করছে। তাদের আইনের আওতায় আনা উচিত বলে তাঁরা মনে করেন।