Amar Praner Bangladesh

পরীমনির যত বিতর্কিত কাণ্ড

 

 

জেড এম ফেরদৌসঃ

 

চলচ্চিত্রে পা রাখার পর থেকেই অভিনয়, গ্ল্যামারসহ বিভিন্ন কারণে আলোচিত- সমালোচিত পরীমনি। ক্যারিয়ারে প্রথম সিনেমা মুক্তির আগেই সর্বাধিকসংখ্যক চলচ্চিত্রে চুক্তিবদ্ধ হয়ে রীতিমতো হইচই ফেলে দেন তিনি। কখনো কাজ, কখনো বা ব্যক্তিগত কারণে আলোচনায় থেকেছেন এই নায়িকা। বুধবার (৪ আগস্ট) বিকালে পরীমনির বাসায় অভিযান চালায় র‌্যাব। বাসায় অবৈধ মাদক রাখার দায়ে তাকে আটক করা হয়। এ ঘটনার ঠিক আগে ফেসবুক লাইভে আসেন পরীমনি। মুহূর্তেই পুনরায় আলোচনায় চলে আসেন তিনি। এবারের আলোচনার বিষয় মাদক-কাণ্ড!

 

বোট ক্লাব কাণ্ড

গত ৯ জুন রাতে বোট ক্লাবে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগ এনে আবাসন ব্যবসায়ী নাসির উদ্দিন মাহমুদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন পরীমনি। এ নিয়ে গত ১৩ জুন নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে স্ট্যাটাস দিলে তোলপাড় শুরু হয়। ১৪ জুন উত্তরার একটি বাসা থেকে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ অভিযুক্ত নাসির ইউ মাহমুদ ও তুহিন সিদ্দিকী অমিকে মাদকসহ গ্রেপ্তার করে। এরপর প্রকশ্যে আসে বোট ক্লাবের একটি ভিডিও ক্লিপ। তারপর পরীমনির বিরুদ্ধে ভাঙচুরের অভিযোগ তোলে অল কমিউনিটি ক্লাব লিমিটেড। এসব বিষয় নিয়ে শুরু হয় তুমুল সমালোচনা।

 

ফুটবলারের সঙ্গে পরীমনির বিয়ে

ঢাকাই চলচ্চিত্রে পা রাখার আগে এক ফুটবলারকে বিয়ে করেছিলেন পরীমনি। তার সেই স্বামীর নাম ফেরদৌস কবীর সৌরভ। বাড়ি যশোরের কেশবপুর। তিন বছর প্রেম করার পর ২০১২ সালের ২৮ এপ্রিল বিয়ে করেন পরীমনি ও সৌরভ। ২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারিতে পরীমনি ও সৌরভের কয়েকটি ঘনিষ্ঠ ছবি ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে। পাওয়া যায় বিয়ের কাবিননামার একটি কপি। পরে এ নিয়ে খবরও প্রকাশ করে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম। যদিও পুরো বিষয়টি অস্বীকার করেন পরীমনি। এ ঘটনায় দারুণ ক্ষেপেছিলেন এই নায়িকা।

 

জাজ মাল্টিমিডিয়ার সঙ্গে দ্বন্দ্ব

‘ভালোবাসা সীমাহীন’ সিনেমার মধ্য দিয়ে ঢালিউডে অভিষেক হয় পরীমনির। এরপর জাজ মাল্টিমিডিয়ার ‘রক্ত’ সিনেমায় কাজ করেন। এই সিনেমার জন্য দু’বছর অন্য কোনো প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের সিনেমায় কাজ করতে পারেননি তিনি। তার গাফিলতির কারণে এ সিনেমার শুটিং ঝুলে গিয়েছিল বলে অভিযোগ তোলে জাজ। এ প্রসঙ্গে পরীমনি সংবাদমাধ্যমে বলেছিলেন, ‘সবকিছু এই প্রতিষ্ঠানের অনুমতি নিয়ে করতে হয়। এটা আমার জন্য খুব কষ্টের অভিজ্ঞতা। কারণ, আমি খুব স্বাধীনচেতা মানুষ। ধরেবেঁধে কোনো কাজ আমাকে দিয়ে করানো সম্ভব না।

 

হাসপাতালে মারপিট করে নতুন বিতর্ক

২০১৯ সালের ৩০ জুন, নগরীর অ্যাপোলো হাসপাতালের ৭ম তলায় একজনকে পিটিয়ে বিতর্কে জড়ান পরীমনি। এ নিয়ে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে খবর প্রকাশিত হয়। প্রত্যক্ষদর্শী ও হাসপাতাল সূত্র জানিয়েছিল—ওই ফ্লোরে ৭২০২ নম্বর কেবিনে চিকিৎসাধীন ছিলেন পরীমনির নানা। সেখানে আগে থেকেই পরীমনি অবস্থান করছিলেন। এক ব্যক্তি ডাক্তার পরিচয় দিয়ে সেই কক্ষে প্রবেশ করেন। ডাক্তার পরিচয়দানকারী ওই ব্যক্তি নিজেকে পরীমনির প্রেমিক দাবি করে। মোবাইলে কল রেকর্ড দেখিয়ে তিনি প্রমাণ দেওয়ার চেষ্টা করেন। এ সময় ওই ব্যক্তির সঙ্গে বাকবিতণ্ডায় জাড়ান পরীমনি। এক পর্যায়ে ওই আগন্তুককে মারপিট শুরু করেন তিনি। ফিল্মি স্টাইলে তাকে মারতে মারতে কেবিনের বাইরে নিয়ে আসেন। শেষ পর্যন্ত এ ঘটনা থানাপুলিশ পর্যন্ত গড়ায়।

 

সাংবাদিকের সঙ্গে বাগদান

২০১৬ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি এক সাংবাদিকের সঙ্গে পরীমনির প্রেমের খবর প্রকাশিত হয়। ২০১৯ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি বেশ ঢাকঢোল পিটিয়ে তাদের বাগদান সম্পন্ন হয়। শোনা গিয়েছিল, পরের বছর ভালোবাসা দিবসে বিয়ে করবেন তারা। সে বছরের জুনে এক সাক্ষাৎকারে পরীমনি তাদের সম্পর্ক ভেঙে যাওয়ার ইঙ্গিত দেন।

 

৩ টাকার বিয়ে

সাংবাদিকের সঙ্গে পরীমনির বাগদান হলেও তা ভেঙে যায়। এরপর ৩ টাকা কাবিনে পরীমনি বিয়ে করেন নির্মাতা কামরুজ্জামান রনিকে। ২০২০ সালের ১০ মার্চ গোপনে বিয়ে করেন তারা। পরে গোপন বিয়ের খবর জানান এই যুগল। তারা জানান, নির্মাতা হৃদি হকের ‘১৯৭১: সেই সব দিন’ সিনেমায় একসঙ্গে কাজ করতে গিয়ে তাদের সখ্য গড়ে ওঠে। এরপর বিয়ের সিদ্ধান্ত নেন এই জুটি। বিয়ের পর দীর্ঘদিন কেটে যাওয়ার পর পরীমনির স্বামী বা সংসারের কোনো খবর পাওয়া যায় না। এরপর শুরু হয় এই সংসার ভাঙনের গুঞ্জন। যদিও এ বিষয়ে এখনো স্পষ্ট কোনো বক্তব্য দেননি এই নায়িকা।