Amar Praner Bangladesh

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার একান্ত আস্থাভাজন ৪৭ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ মোতালেব মিয়া

 

এ.আর. মজিদ শরীফ :

 

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আহ্বানে এদেশ স্বাধীনতা লাভ করেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার একান্ত আস্থাভাজন বিশিষ্ট সমাজসেবক ও কর্মী বান্ধব জনাব মোতালেব মিয়া, ৪৭ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর, ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন।

বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে বঙ্গবন্ধুর আর্দশের সৈনিক হয়ে আহবান জানায় স্বাধীনতার উজ্জ্বল বার্তার। বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ এর আদর্শে সকলকে একত্রিত হয়ে কাজ করার আহবান জানিয়েছেন কাউন্সিলর মোতালেব মিয়া।

তিনি দৈনিক আমার প্রাণের বাংলাদেশের সাথে একান্ত সাক্ষাতকারে বলেন, আপনারা দেখছেন দেশ কিভাবে এগিয়ে যাচ্ছে আমাদের উচিত যে যেখানে আছে তার ক্ষমতা, তার সামর্থ অনুযায়ী দেশের উন্নয়নে এগিয়ে আসা, আবার সাথে সাথে খেয়াল রাখতে হবে ষড়যন্ত্রকারীরা যেন দেশের কোন ক্ষতি করতে না পারে । আপনারা দেখছেন তেল সিন্ডিকেট কিভাবে দেশের বাজার পরিস্থিতি গোলাটে করার চেষ্টা করছে, কিন্তু আমার প্রাণের চেয়ে প্রিয় প্রধানমন্ত্রী তেলের এই উর্ধ্ব গতিকে রোধ করার চেষ্টা করে যাচ্ছেন।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কখনো তিনি নিজের জন্য ভাবেন নাই । তার সারাটি জীবনই কেটেছে এই দেশের স্বাধীনতা, উন্নয়ন আর জনগনের মুক্তির প্রত্যাশায়। এখন তার যোগ্য কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যেভাবে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন, মহান আল্লাহ্ যেন মায়া-মমতায় ভরা দেশের অবিভাবক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার শরীর স্বাস্থ্য ভালো রাখেন এবং ওনার অসমাপ্ত সকল কাজ সমাপ্ত করে দেশকে ওনার মনের মাধুরী দিয়ে সাজিয়ে যেতে পারেন। যারাই দেশকে ভালোবাসে তারাই আওয়ামীলীগ করে।

কাউন্সিলর মোতালেব মিয়া আরেকটি প্রশ্নের জবাবে আরো বলেন, যেখানেই ভালো সেখানেই মন্দের আগমন ঘটে আপনি ভালো কাজ করেন শয়তান আপনাকে ধোকা দিবে । বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের উন্নয়নের জোয়ারে কিছু হাইব্রিট নেতা মুখোশধারী ফায়দা হাসিলকারী দুষ্টলোক আওয়ামীলীগে প্রবেশ করেছে। এরা কখনই বঙ্গবন্ধুর আদর্শের- প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মতাদর্শের নেতা কর্মি হতে পারে না। এরা এসেছে অন্যদল থেকে নিজেদের ফায়দা হাসিল আর ষড়যন্ত্র করার মন মানুষিকতা নিয়ে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বাছাই প্রক্রিয়াও শুরু করেছেন।