Amar Praner Bangladesh

ফকিরহাটে প্রতারণা করে পালিয়ে যাওয়ার সময় ভন্ড কবিরাজ আটক ও স্বর্ণলংকার উদ্ধার

 

 

মেহেদি হাসান নয়ন, বাগেরহাট :

 

বাগেরহাটের ফকিরহাট উপজেলার ফলতিতা এলাকা থেকে প্রতারনা করে স্বর্ণালংকার নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় ফারুক হাওলাদার (৪২) নামের একজন ভন্ড কবিরাজকে আটক করেছে মডেল থানা পুলিশ। এসময় তার কাছ থেকে স্বর্ণালংকার উদ্ধার করেছে। এ ব্যাপারে থানায় একটি প্রতারনা মামলা দায়ের হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, উপজেলার শিয়ালীকান্দা গ্রামের সমর পাত্রের ছেলে প্রনয় পাত্র একজন ক্যান্সারে আক্রান্ত রোগী। দেশে-বিদেশে চিকিৎসা করালেও ভাল না হওয়ার বর্তমানে বাড়ীতে ঔষধের পাশাপাশি বিভিন্ন কবিরাজী চিকিৎসা চলছে।

এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে শুক্রবার সকাল ৮টার দিকে অচেনা এক কবিরাজ মোবাইল ফোন করে অসুস্থ প্রনয় পাত্রের পরিবারকে জানায়, আমি যা করতে বলি তাই যদি করা হয় তাহলে প্রনয় পাত্র সুস্থ হয়ে যাবে। সহজ সরল অসহায় পরিবারটি ওই ভন্ড কবিরাজের কথামত এদিন বাড়িতে পূজা করেন। এরপর ব্যাগের ভেতর ঘরের সব স্বর্ণালংকার রেখে মন্ত্র জব করতে বলেন। পরবর্তীতে স্বর্ণ রাখা ব্যাগটি নিয়ে একটি ব্রীজের নিচে থেকে জল নিয়ে আসতে বলেন। এরপর মোবাইল ফোন করে জানানো হয় ওই স্বর্ণের ব্যাগটি একটি ঘেরের পাড়ে রেখে যেতে। ভন্ড কবিরাজের কথামত স্বর্ণের ব্যাগ রেখে দুরে দাড়িয়ে বিষয়টি বোঝার চেষ্টা করে পরিবারের লোকজন। এরপর ঘেরের পাড়ে রাখা স্বর্নালংকারের ব্যাগটি চুরি করে পালানোর সময় স্থানীয়রা ফারুক হাওলাদারকে আটক করে।

খবর পেয়ে মডেল থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে আটক ভন্ড কবিরাজ ফারুক হাওলাদারের কাছ থেকে তিনটি স্বর্নের চেন, দুইটি স্বর্নের আংটি উদ্ধার করে। যার আনুমানিক মূল্য এক লক্ষ সত্তর হাজার টাকা। এসময় আটককৃত আসামীর ব্যবহৃত মোবাইল ফোন জব্দ করেন। আটককৃত ভন্ড কবিরাজ বরিশালের দক্ষিণধামুড়া গ্রামের আ. কাদের হাওলাদারের ছেলে। এ ব্যাপারে অসুস্থ প্রনয় পাত্রে কাকা অমিও পাত্র বাদী হয়ে ফকিরহাট মডেল থানায় একটি প্রতারনা মামলা করেন।

ফকিরহাট মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মু. আলীমুজ্জামান বলেন, প্রতরণা করে পালিয়ে যাওয়ার সময় ফারুক হাওলাদার নামে এক ভন্ড কবিরাজকে আটক করা হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় একটি মামলা হয়েছে।