ফাঁসির দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ

 

(আল্লাহ্ ও নবীকে নিয়ে কটূক্তির প্রতিবাদে মুসল্লিদের বিক্ষোভ মিছিল। ইনসেটে- আটককৃত শ্রাবণ হালদার।)

 

ভূঞাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধিঃ

 

টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে আল্লাহ ও নবীকে নিয়ে ফেসবুক মেসেঞ্জার গ্রুপে কটূক্তি করার অভিযোগে শ্রাবণ হালদার (২০) নামে একাদশ শ্রেণির এক শিক্ষার্থীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার (৩১ আগস্ট) রাতে শ্রাবণ হালদারকে সিরাজগঞ্জ রোড এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়। সে উপজেলার গোবিন্দাসী ইউনিয়নের খানুরবাড়ী গ্রামের শ্যামল হালদারের ছেলে এবং ঢাকার বীরশ্রেষ্ঠ নুর মোহাম্মদ রাইফেলস স্কুল এন্ড কলেজের ছাত্র।

স্থানীয়রা জানায়, শ্রাবণ হালদার বন্ধুদের নিয়ে ফেসবুকে একটি মেসেঞ্জার গ্রুপে আল্লাহ ও নবীকে নিয়ে কটূক্তি করে বলে অভিযোগ উঠে। পরে সেই কথোপকথনের স্ক্রিনশর্ট বিভিন্ন ফেসবুক একাউন্টের মাধ্যমে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে বিষয়টি ভাইরাল হয়। পরে স্থানীয় কুকাদাইর উত্তরপাড়া জামে মসজিদের ইমাম বেলাল হোসেনের নেতৃত্বে স্থানীয় ইমাম, মোয়াজ্জিন, মাদ্রাসা ছাত্র ও মুসল্লিরা

গতকাল সোমবার (৩১ আগস্ট) বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে গোবিন্দাসী বাজারে দ্রুত গ্রেফতার ও ফাঁসির দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করে এবং শ্রাবণদের বাড়িতে ভাঙচুর চালায়। পরে ঘটনাস্থলে স্থানীয় প্রশাসন, পুলিশ ও জনপ্রতিনিধি শ্রাবণ হালদারকে দ্রুত গ্রেপ্তারের আশ্বাস দিলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে।

এদিকে, মঙ্গলবার (০১ সেপ্টেম্বর) সকালে কটুক্তিকারী শ্রাবণ হালদারের ফাঁসির দাবিতে উপজেলার গোবিন্দাসী বাজারে বিক্ষোভ করে মুসুল্লিরা। বিক্ষোভ শেষে গোবিন্দাসী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে গিয়ে সমাবেশ করে। সমাবেশে বক্তারা কটুক্তিকারীর দ্রুত বিচারের আওতায় এনে ফাঁসির দাবি জানান।

এ বিষয়ে ভূঞাপুর থানার অফিসার ইনর্চাজ মো. রাশিদুল ইসলাম জানান, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক মেসেঞ্জার গ্রুপে আল্লাহ ও নবীকে নিয়ে কটূক্তির অভিযোগে শ্রাবণ হালদারকে গত সোমবার রাতে সিরাজগঞ্জ রোড এলাকা থেকে আটক করা হয়। পরে ওই রাতেই কুকাদাইর উত্তরপাড়া জামে মসজিদের ইমাম হাফেজ মওলানা বেলাল হোসেন বাদী হয়ে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়ের করেন। এছাড়াও রিমান্ডের আবেদন করা হয়েছে।