Amar Praner Bangladesh

বরগুনায় আবারও ১৪৪ ধরা জারী করেছে প্রশাসন

 

 

শাকিল আহমেদ, বরগুনাঃ

 

বরগুনা জেলা ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের একই সময়ে একই স্থানে ২১ আগস্টের কর্মসূচি দেয়ায় বিশৃঙ্খলা, মারামারিসহ যেকোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটার আশঙ্কায় বরগুনা সরকারি কলেজসহ পৌর এলাকায় সকল প্রকার সভা-সমাবেশে নিষিদ্ধ ঘোষণা করে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে।

রবিবার (২১ আগস্ট) অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট শুভ্রা দাস স্বাক্ষরিত এক আদেশে এই নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়।

বরগুনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলী আহম্মেদ এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, আমাদের নিয়মিত মহড়া চলছে। সরকারি কলেজসহ পৌর এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

এর আগে ৩০ জুলাই রাত পৌনে ৯ টার দিকে বরগুনা পৌরশহরের ধর্মতলা মোড়ে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া, ইটপাটকেল নিক্ষেপ ও মোটরসাইকেল ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে। এতে বেশ কয়েকজন ছাত্রলীগ কর্মী আহত হন।

পরবর্তীতে ৫ আগস্ট শহীদ শেখ কামালের জন্মদিন উপলক্ষে একই সময়ে বরগুনা সরকারি কলেজ মসজিদে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপ দোয়া অনুষ্ঠানের আয়োজন করায় কলেজসহ আশপাশ এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি করা হয়।

এছাড়াও ১৫ আগস্ট বেলা ১২টার দিকে বরগুনা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনের সামনে শোক দিবসের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে গিয়ে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এসময় পুলিশের লাঠিচার্জে অর্ধশতাধিক নেতা-কর্মী আহত হন।

প্রসঙ্গত, দীর্ঘ আট বছর পর গত ১৭ জুলাই বরগুনা জেলা ছাত্রলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এরপর ২৪ জুলাই রাতে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক জেলা ছাত্রলীগের নতুন কমিটির অনুমোদন দেন। এতে জেলা কমিটির সভাপতি রেজাউল কবির রেজা, সাধারণ সম্পাদক তৌশিকুর রহমান ইমরান সহ ৩৩ সদস্যের নাম প্রকাশ করা হয়।

এরপর থেকেই সদ্য ঘোষিত এ কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে প্রত্যাখ্যান করে সিনিয়র সহ-সভাপতি সবুজ মোল্লা ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রাজ আরিয়ান বিশাল সহ পদবঞ্চিতদের কর্মী সমর্থকরা ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া, ভাংচুর সহ নিজেদের মধ্যে সংঘর্ষে জড়াচ্ছেন।