Amar Praner Bangladesh

বসন্তের ভালবাসায় সেজেছে প্রকৃতি

 

 

মোঃ আবদুল আউয়াল সরকার :

ঋতুরাজ ‘বসন্ত’,এ ঋতুতে প্রকৃতি কন্যা নতুন রুপে সজ্জিত হয়।বিশেষ গাছে নতুন কচি পাতার আগমন ঘটে। ‘শিমুল,পলাশ আর কৃষ্ণ চুড়ার আবাসে চারিদিক লাল রাঙা হয়ে পড়ে।

বসন্তে রমনীরা হলুদ-লালচে শাড়ীর সংমিশ্রনে নিজেদেরকে নতুনত্বর ছোঁয়া দান করে। বাসন্তি শাড়িতে অপরূপে সজ্জিত পকৃতির সাথে রমনীরা ও নতুন রুপে নিজেকে সাজিয়ে তোলে। ছেলেরা সাদা পাঞ্জাবী আর শিশুরা রং-বে’রঙের পোশাকে নিজেকে সজ্জিত করে তোলে।

বাঙালির, বার মাসে তের পার্বণ সংস্কৃতির এক অপার নিদর্শন বসন্ত বরণ। ফুল ফুটুক আর নাই ফুটুক -বসন্ত বরণে বাঙালি সর্বদাই সচেষ্ট। বসন্ত বাতাসে সই গো, বসন্ত বাতাসে’ তোমার বাড়ির ফুলের গন্ধ আমার বাড়ি আসে। ফাল্গুনের প্রথম প্রহরে রক্তিম লালিমা নিয়ে সূর্য প্রকৃতিকে নবরূপে সজ্জিত করে।

আম্রকাননে ভ্রমরের মেলাবন্ধন লক্ষ্য করা যায়। সকাল, সকাল কোকিলের কুহু কুহু গানে মুখরিত চারিপাশ। শীতের হিমেল হাওয়ার পড়শ শেষে এলো আজ বসন্ত।সাথে বছর ঘুরে এলো আবার ভালবাসার সংস্পর্শ। ভালবাসা তুমি গোলাপের পাপড়ির মত শত শত ছেড়া পাতা।তুমিই সে যে কিনা অজস্র মানুষকে ছলনায় বিমোহিত করো-ভালবাসা তুমি অপার সৌন্দর্যে মুড়ানো।ভালবাসা তুমি ফুলের পাপড়ির মত। ভালবাসা তুমি শুধুই নিরাশা। ভালবাসা শুধুই লোক দেখানো নয়,ভালবাসা আত্মার এক নিবিড় সম্পর্ক।

ভালবাসে না এমন লোক খুব কমই আছে পৃথিবীতে।ভালবাসা মনের সকল অন্ধকারকে দূর করে আলোর সন্ধান এনে দেয়। ভালবাসার জন্য কোন দিবস লাগে না! তবুও আমরা ভ্যালেন্টাইন এর প্রেমের কাহীনিকে অবলম্বন করে ভালবাসার জন্য দিনক্ষন পেতে রেখেছি। ভাল বাসার জন্য অনন্ত কালের প্রয়োজন নেই! ভালবাসা খুবই আবেগ আর স্নেহ মাখা বুলি। ভালবাসা শুধু প্রেমিক-প্রেমিকার মাঝে সীমাবদ্ধ নয়।ভালবাসাটা জগৎ জুড়িয়া এক মায়ার বন্ধন।বাবা-মা,আত্মীয় স্বজন সবই ভালবাসার অংশ।
ভালবাসা বাসির অন্য রকম অভিজ্ঞতা।কেউ ভালবেসে হাসে,কেউ বা ভালবেসে হাসায় অন্যজনকে। ভালবাসা দিবসে কেউ ছুটে আপন জনের সান্নিধ্যে,কেউ আবার ভালবাসার টানে ছুটে যায় ছিন্নমূলের কাছে।

কেউ ভালবাসে,কেউ বাসায়। এই ভাল বাসা-বাসির মাধ্যখানে আবার কেউ এসে দেয়াল হয়ে দাড়ায়।এমন দিকে না ই যেতে চাই। ভালবাসা পরিপূর্ণ হোক আপনার জীবন।

ভালবাসা দিবসে বিশ্বের সকল ভালবাসা-বাসী মানুষের জন্য রইলো শুভ কামনা। ভালবাসার পবিত্রতা রক্ষা করে মিশে যাক সকল আশা। হীনমন্যতাকে দূর করে সত্যিকারের ভালবাসায় নিমর্জিত হোক তরুনরা।ভালবাসায় ভরে উঠুক প্রানবন্ত আপনার জীবন।সে কামনায় আবার ও ভালবাসার শুভেচ্ছা জানাচ্ছি বাংলাদেশের প্রতিটি মানুষকে। ভালবাসা নিবেদন করছি আমার আত্মীয়, স্বজন,পরিজন,ছিন্নমূলে বেড়ে উঠা শিশু-কিশোরদের,শ্রমজীবি মানুষদের,বিদেশে কর্মরত প্রবাসীদের, কৃষক, জেলে, কামার, কুমার সহ দেশের অনাহারে, অনিদ্রায় রাত্রিযাপন কারী সকলদের।