Amar Praner Bangladesh

বামনায় ইসলামিয়া হাসপাতাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারের শুভ উদ্বোধন

 

 

এস এম ফোরকান মাহমুদঃ

 

উন্নত চিকিৎসা সেবা ও মানসম্মত স্বাস্থ্য পরীক্ষার প্রতিশ্রুতি নিয়ে বরগুনা জেলার বামনা উপজেলা সদর এর কলেজ রোডে শুক্রবার (২সেপ্টেম্বর) বর্ণাঢ্য আয়োজনের মাধ্যমে ‘ইসলামীয়া হাসপাতাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টার’ এর উদ্বোধন করা হয়েছে।

আয়োজক সূত্রে জানা যায় অত্র অঞ্চলের চিকিৎসা সেবা প্রার্থীদেরকে বিশেষজ্ঞ ডাক্তার ও অভিজ্ঞ সার্জনের সমন্বয়ে এবং উন্নত মেশিনারীর সহায়তায় সকল ধরণের প্যাথলজিক্যাল পরীক্ষা-নিরীক্ষার মাধ্যমে সেবার সর্বোচ্চ মান নিশ্চিত করতে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বদ্ধপরিকর। তাই সাধারণ কেবিন ও ভি আই পি কেবিন, জেনারেল ওয়ার্ড, নবজাতক ও শিশু কেয়ার ইউনিট, জরুরী অক্সিজেন ব্যবস্থা, জরুরী এ্যাম্বুলেন্স সার্ভিসসহ প্রয়োজনীয় সকল সুযোগ সুবিধার সমন্বয় ঘটিয়ে প্রতিষ্ঠানটি ইতোমধ্যেই স্থানীয়দের মাঝে বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনার সৃষ্টি করেছে। হাসপাতাল সূত্রে জানা যায় যে, উন্নত সেবা নিশ্চিত করতে অত্র হাসপাতালে দুইজন আবাসিক ডাক্তার, একাধিক অভিজ্ঞ সার্জন ও বরিশাল বিভাগসহ দেশব্যাপি স্বনামধন্য বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকবৃন্দ সার্বক্ষণিক চিকিৎসা সেবা প্রদান করবেন।

উদ্ভোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, বামনা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ সাইতুল ইসলাম লিটু মৃধা।
প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, ইসলামিয়া হাসপাতাল টি বামনায় প্রাইভেট হাসপাতাল গুলোর মধ্যে অনুকরনীয় হয়ে থাকবে বলে আমি বিশ্বাস করি।

এ সময় তিনি সঠিক চিকিৎসা সেবার মাধ্যমে বামনার সাধারন মানুষের পাশে থাকার জন্য হাসপাতাল কতৃপক্ষের প্রতি আহবান জানান।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন- সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ সৈয়দ মানজুরুর রব মুর্তাজা আহসান, বামনা উপজেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি মোশাররফ হোসাইন জোমাদ্দার, সাবেক মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মোসাঃ নাজমুন্নাহার নাজু, উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন-সাধারন সম্পাদক মোঃ জসিম উদ্দিন পিন্টু, সাংগঠনিক সম্পাদক ও বামনা সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এ্যাডঃ চৌধুরী কামরুজ্জামান সগীর, সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেলা পরিষদ সদস্য এ্যাডঃ জাহাঙ্গীর হোসেন মোল্লা, হাসপাতালের পরিচালকবৃন্দ মোঃ আবু সালেহ মিলন, মোঃ তাইজুল ইসলাম তুহিন, মোঃ নকীব উদ্দিন আহমেদ ও মোঃ জাকারিয়া কাওসার সহ উপজেলার বীর মুক্তিযোদ্ধাবৃন্দ, স্থানীয় জনপ্রতিনিধিবৃন্দ, চিকিৎসকবৃন্দ, কর্মরত সরকারি বেসরকারি কর্মকর্তাবৃন্দ, শিক্ষকবৃন্দ, সাংবাদিকবৃন্দ, ব্যাবসায়ীবৃন্দ এবং সর্বস্তরের জনগণ উপস্থিত ছিলেন।
শেষে হসপিটালটির ভবিষ্যৎ সাফল্য কামনা করে বিশেষ দোয়া ও মোনাজাত করা হয়।