Amar Praner Bangladesh

ভাঙ্গারি মালামালের আড়ালে মাদক পরিবহন রাজধানী মোহাম্মদপুর হইতে ৩৯ কেজি গাঁজা সহ দুই মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

 

 

দেলোয়ার হোসেন :

মাদকবিরোধী অভিযানের অংশ হিসাবে আজ দোসরা সেপ্টেম্বর রোজ শুক্রবার র‌্যাব-২ এর একটি আভিযানিক দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, সীমান্তবর্তী জেলা হতে একটি গাড়ীতে করে মাদকের একটি বড় চালান রাজধানী ঢাকায় হস্তান্তরের জন্য নিয়ে আসছে।

প্রাপ্ত সংবাদের সত্যতা যাচাই করে র‌্যাব-২ এর আভিযানিক দল ০২/০৯/২০২২ইং তারিখ ভোর ০৫.০০ ঘটিকায় রাজধানীর মোহাম্মদপুর বেড়িবাধঁ এলাকায় চেকপোষ্ট স্থাপন করে। আনুমানিক ভোর ০৫.৫০ ঘটিকায় সন্দেহভাজন একটি পিকআপ ভ্যানকে তল্লাশী কালে উক্ত গাড়ীতে থাকা ১) মোঃ মেরাজ হাসান(২০), পিতা-মৃত কবির, চৌদ্দগ্রাম, কুমিল্লা এবং ২) মোঃ রনি (৩২), পিতা- মোঃ জামাল উদ্দিন, কেন্দুয়া, নেত্রকোনা’কে র‌্যাব-২ আটক করে।

আটককৃত আসামীদের মাদকের বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করলে প্রথমে অস্বীকার করলেও পরবর্তীতে গাড়িতে গাঁজা (মাদক) আছে বলে স্বীকার করে। তাদের দেয়া তথ্য মতে তল্লাশী করে পিকআপ ভ্যানের ভিতরে বিভিন্ন ধরনের ভাঙ্গারি মালামালের মধ্যে অভিনব পন্থায় লুকায়িত ৩৯ কেজি গাঁজা পাওয়া যায়, যার বর্তমান বাজার মূল্য আনুমানিক- ১১,৭০,০০০/- (এগার লক্ষ সত্তর হাজার)টাকা। মাদক পরিবহন কাজে ব্যবহৃত পিকআপ ভ্যান ও দুইটি মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়।

আটককৃত আসামীদরে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, রাজধানীসহ আশেপাশের জেলায় নেশা জাতীয় দ্রব্যের ব্যাপক চাহিদা থাকায় অভিনব পন্থায় নিত্য নতুন কৌশল অবলম্বন করে অবৈধভাবে পার্শ্ববর্তী দেশ থেকে স্বল্প মূল্যে গাঁজা ক্রয় করে যা রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে চড়াদামে বিক্রয় ও সরবরাহ করে আসছিল। উল্লেখ্য যে, মোঃ রনি মাদক মামলায় ০৪ মাস কারাভোগের পর গত ২৬ আগস্ট ২০২২ ইং তারিখে জামিনে মুক্ত হয়। তার বিরুদ্ধে রাজধানীর হাজারীবাগ থানায় মাদক মামলা এবং মোঃ মেরাজ হাসান এর বিরুদ্ধে ফেনী মডেল থানায় একটি মামলা রয়েছে।

এছাড়াও গ্রেফতারকৃত আসামীদের জিজ্ঞাসাবাদে প্রাপ্ত গুরুত্বপূর্ণ তথ্য যাচাই বাছাই করে ভবিষ্যতে র‌্যাব-২ এ ধরনের মাদক বিরোধী অভিযান অব্যাহত রাখবে। উপরোক্ত বিষয়ে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।