সোমবার, ৩০ জানুয়ারী ২০২৩, ১১:২১ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
গাজীপুরে ১২ পিস প্যাকেটের কেক খেয়ে ২ বোনের মৃত্যু ‘সাফ অ-২০ ওমেন্স চ্যাম্পিয়নশীপ ২০২৩’-এর খেলা, ‘সহকারী টিম লিডার’ এর দায়িত্বে আবারো নুরুল ইসলাম জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে মমতাজুল হক সভাপতি ও অক্ষয় কুমার সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত চুয়াডাঙ্গায় ভালাইপুরের শাজান সজীবের বিরুদ্ধে জমি দখলের পায়তারা নড়াইলের মধুমতী নদীতে নিখোঁজ হওয়ার ৩দিন পর যুবকের লাশ উদ্ধার দেশ ও জাতির স্বার্থে ঐক্যের বিকল্প নেই : হাসান সরকার সাতক্ষীরায় অবসরপ্রাপ্ত সরকারি কর্মচারী কল্যাণ সমিতির বার্ষিক সাধারণ সভা টাঙ্গাইলে সেচের মূল্য টাকায় পরিশোধের দাবিতে কৃষকদের মানববন্ধন সৌদি আরবে এক সপ্তাহে বাংলাদেশিসহ ১৬,৩০১ জন অবৈধ প্রবাসী গ্রেফতার প্রভাবশালীদের ছত্রছায়ায় লাইনম্যান বেপরোয়া প্রশাসনের নিরব ভূমিকা

ভালুকায় মাল্টার বাম্পার ফলন

Reporter Name
  • Update Time : বুধবার, ৮ নভেম্বর, ২০১৭
  • ৩০ Time View

মোঃ মমিনুল ইসলাম, ভালুকা প্রতিনিধি: ময়মনসিংহের ভালুকায় এবার গ্রীন মাল্টার বাম্পার ফলন হয়েছে। মাটি ও আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় এ অঞ্চলে দিন দিন বাড়ছে মাল্টা চাষ। স্বল্প সময় ও খরচে অধিক লাভ হওয়ায় এ অঞ্চলের চাষীরা ঝুঁকছে মাল্টা চাষে।

এখানকার ফরমালিনমুক্ত মাল্টা স’ানীয় চাহিদা পূরণ করে পাঠানো হচ্ছে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জায়গায়। মাল্টার উৎপাদন বৃদ্ধির জন্য চাষীদেরকে প্রয়োজনীয় পরামর্শ প্রদান করে যাচ্ছে স’ানীয় কৃষি বিভাগ।

ভালুকার মন্মথ সরকার, বঙ্গবন্ধু জাতীয় কৃষি পদক পাওয়া একজন মাল্টা চাষী। এলাকায় মাল্টা বাবু নামে পরিচিত তিনি। ২০০৯ সালে মাত্র একটি চারা দিয়ে শুরু করেন মাল্টা চাষ। সেই গাছ থেকে চারা উৎপাদন করে বর্তমানে তার মাল্টা গাছের সংখ্যা ৩০০টি এবং চারা রয়েছে প্রায় দশ হাজার। ২০১৫ সাল থেকে বাজারে বিক্রি শুরু করেন বারি-১ জাতের গ্রীন মাল্টা। মাল্টাগুলো ফরমালিনমুক্ত হওয়ায় স’ানীয় বাজারে এসবের চাহিদা অনেক। মাল্টা ফল ও চারা বিক্রি করে মন্মথ সরকারের বাৎসরিক আয় প্রায় ১৫ লাখ টাকা। সরকারি সহযোগিতা পেলে স’ানীয় বাজার ছাড়াও সারাদেশের মাল্টার চাহিদা মেটানো সম্ভব বলে মনে করেন তিনি।

মন্মথ সরকারের সাফল্য দেখে তার কাছ থেকে চারা কিনে এ অঞ্চলে অনেকেই শুরু করেছে মাল্টা চাষ। এর ফলে একদিকে যেমন বৃদ্ধি পেয়েছে মাল্টা চাষ, অন্যদিকে অনেক বেকার যুবকের জন্য সৃষ্টি হয়েছে কর্মসংস’ানের। ভালুকার বাগানের মাল্টাগুলো বিষমুক্ত, মিষ্টি ও ভালো চাহিদা হওয়ায় দূরদূরান্ত থেকে পাইকাররা এসে কিনে নিয়ে যাচ্ছে এখানকার মাল্টা।

ভালুকা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সঞ্জয় কুমার পাল জানান, ‘ভালুকায় প্রায় দেড়শ হেক্টর জমিতে লেবু জাতীয় ফসল উৎপদান করা হচ্ছে। মাল্টা চাষের জন্য কৃষকদেরকে সরকারি উদ্যোগে বিভিন্ন ধরণের সাহায্য সহযোগিতা করা হচ্ছে। সরকারি পৃষ্ঠপোষকতা বৃদ্ধি করা হলে এ অঞ্চলে মাল্টার উৎপাদন আরো বৃদ্ধি করা সম্ভব।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category