ভূঞাপুরে পশুর হাটে করোনার ঝুঁকি স্বাস্থ্যবিধি মানছেনা কেউ

 

আঃ রশিদ তালুকদার, টাঙ্গাইল প্রতিনিধিঃ

 

আসন্ন কোরবানির ঈদকে সানমে রেখে টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরের হাট-বাজার গুলোতে জনসমাগম হচ্ছে আগের মতই।

কোন প্রকার স্বাস্থ্য বিধি মানা হচ্ছে না। গরু ছাগলের হাটে ক্রেতা-বিক্রেতার সমাগম প্রচুর। অল্প জায়গায় বেশী গরু ছাগল একত্র করে বেচা-কেনা করার কারনে লোকজনের ভিড় লেগেই থাকে। উপজেলার হাট-বাজারগুলো ঘুরে দেখা গেছে হাটে আসা ক্রেতা বিক্রেতার মধ্যে মাস্ক ব্যবহার না করা, নিজেদের সুরক্ষা রাখার জন্য হ্যান্ড স্যানিটাইজার বা অন্য কোন ব্যবস্থা না করেই হাটে আসছে লোকজন। এতে করে করোনায় আক্রান্তের ঝুঁকি বাড়ছে।

উপজেলার শিয়ালকোল হাটের ইজারাদার খাইরুল ইসলাম তালুকদার বাবলু জানান, অল্প জায়গায় বেশী লোকের সমাগম এখানে সামাজিক দুরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি মানা কঠিন। গ্রামের মানুষগুলো জীবিকার প্রয়োজনে নানামুখি কাজে ক্রয় বিক্রয়ের জন্য হাটে আসে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে বেচা-কেনা করা কঠিন কাজ।

আমরা মাইকিং করে সতর্ক করছি। দেশ খ্যাত ভূঞাপুর উপজেলার গোবিন্দাসী গরুর হাটের ইজারাদার লিটন মন্ডল যুগান্তরকে জানান, স্বাস্থ্য সুরক্ষা সরঞ্জাম হাটের প্রবেশ পথে রেখে দিয়েছি। কেউ ব্যবহার করে আবার না করার প্রবনতাও আছে। এক কোটি টাকার অধিক মূল্যে ইজারা নিয়েছি কিন্তু এতদিন কোন বেচা-কেনা ছিলনা, ইদানিং স্থানীয়রা গরু কিনতে এসে স্বাস্থ্যবিধি মানছে না।