মাদারীপুরের শিবচরে নদী গর্ভে বিলীনের পথে ইউনিয়ন পরিষদ ভবন

 

 

মাদারীপুর প্রতিনিধি :

আবারও শুরু হয়েছে পদ্মায় ভাঙন। ভাঙনের কবলে পড়েছে মাদারীপুরের শিবচরের বন্দর খোলা ইউনিয়ন পরিষদ। একই সঙ্গে ভাঙনের হুমকিতে রয়েছে কমিউনিটি ক্লিনিক ও কাজিরসুরা বাজার। এ ভাঙনে ইতোমধ্যে ইউনিয়ন পরিষদ ভবনের পিলারসহ কিছু অংশ নদীতে চলে গেছে। সরিয়ে নেয়া হয়েছে মালামাল।

কয়েক বছর আগেও ভবনটি নদী থেকে প্রায় সাত কিলোমিটার দূরে ছিল। পাশে একটি কমিউনিটি ক্লিনিক ও কাজিরসুরা বাজারের অর্ধশতাধিক দোকানপাট সহ জনপদ এখন ভয়াবহ ভাঙনের মূখে। দুই বছর ধরে জিও ব্যাগ ফেলে ভাঙন প্রতিরোধের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে পানি উন্নয়ন বোর্ড। বন্যার পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় এবার ব্যাপক ভাঙন শুরু হয়েছে।

নদী ভাঙনে শিবচরের চরাঞ্চলের চার বিদ্যালয় নদীতে বিলীন হয়ে শিক্ষা কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে। চলতি বন্যায় চরের বন্দরখোলা ইউনিয়নের নুরুদ্দিন মাদবর কান্দি এসইএসডিপি মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের তিন তলা ভবন, চর জানাজাত ইউনিয়নের ইলিয়াস আহমেদ চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয়ের একাধিক স্থাপনা ও ইউনিয়ন পরিষদ, কাঁঠাল বাড়ি ইউনিয়নের ৭৭ নম্বর কাঁঠাল বাড়ি সরকারি বিদ্যালয় নদীতে বিলীন হয়ে গেছে। নদী গর্ভে চলে গেছে অধিকাংশ ঘরবাড়ি।

বন্দরখোলা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নিজাম উদ্দিন বলেন, পদ্মার ভাঙনে এর আগে বন্দরখোলা ইউনিয়নের একটি উচ্চ বিদ্যালয় ও কাজিরসুরা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় নদী গর্ভে বিলীন হয়েছে। ইউনিয়ন পরিষদ ভবনও ভাঙনের মুখে। কমিউনিটি ক্লিনিক ও কাজিরসুরা বাজার ভাঙনের মুখে। যেকোনো সময় ইউনিয়ন পরিষদ ভবন নদী গর্ভে বিলীন হয়ে যাবে।