মানুষ গড়ার কারিগর সবার প্রিয় জিল্লুর রহমান সর্বদা নিবেদিত প্রাণ এলাকার শিক্ষা উন্নয়নে

 

 

নাসির উদ্দিনঃ

 

শিক্ষাই জাতির মেরুদন্ড, “যে জাতি যত শিক্ষিত, সে জাতি তত উন্নত।” শিক্ষার এ মূলমন্ত্র বুঁকে ধারণ করে সুদুর লন্ডন থেকে তিনি অনুভব করতেন। তিনি এলাকাবাসীর শিক্ষার কথা চিন্তা করে খিলক্ষেত ডুমনী এলাকায় একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান করেন, আমিরজান স্কুল এন্ড কলেজ।

এক সময় রাজধানীর খিলক্ষেত থানার সাবেক ডুমনী ইউনিয়ন বর্তমান ৪৩ নং ওয়ার্ড ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন। তিনি অতি স্বল্প সময়ে এলাকার শিক্ষা দীক্ষা সহ ব্যাপক সামাজিক উন্নয়ন ঘটাতে সক্ষম হন।

বিশেষ করে এলাকার শিক্ষা ক্ষেত্রে উন্নয়নে সিংহভাগ উন্নয়নের দাবীদার জিল্লুর রহমান, চেয়ারম্যান, আমিরজান স্কুল এন্ড কলেজ। তিনি অত্যন্ত বিনয়ী, সদালাপি, মেধাবী, সুক্ষ্ম জ্ঞান সম্পন্ন-ব্যক্তিত্ব সম্পন্ন একজন মানুষ। যাহার সান্নিধ্যে না গেলে বুঝা যায় না তিনি কতটা বড় মনের অধিকারী।

তিনি সুদুর লন্ডল থেকে উচ্চ শিক্ষায় ডিগ্রি নিয়ে দেশে এসে নিজেকে এলাকার শিক্ষা উন্নয়নে সম্পৃক্ত করেছেন।

তাঁর সর্বক্ষণ চিন্তা চেতনা কিভাবে এলাকার উন্নয়নে বিশেষ করে শিক্ষা ক্ষেত্রে কিভাবে উন্নয়ন করা যায়। আর শিক্ষা ক্ষেত্রকে অগ্রাধিকার দিয়ে তিনি তাঁর প্রতিষ্ঠানটিকে অতি স্বল্প সময়ে ব্যাপক পরিচিতি লাভ করতে সক্ষম হন।

বিশেষ করে গরীব-অসহায়-মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদের সম্পূর্ণ বিনা বেতনে অধ্যায়নের সুযোগ করে দিয়ে মানবতার দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। এলাকাবাসীর সাথে আলাপ করে আরো জানা যায়, সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারের সন্তান হিসেবে এলাকায় তাঁর পরিবারে ব্যাপক সুনাম অর্জন করেছেন।

এ ব্যাপারে জিল্লুর রহমান এই প্রতিবেদককে জানান, আমার ধ্যান-জ্ঞান এলাকার সার্বিক উন্নয়নে কিভাবে নিজেকে নিয়োজিত করে এলাকার তথা দেশের সার্বিক উন্নয়নে এবং বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্ন বাস্তবায়নে ভূমিকা রাখা যায়।