Amar Praner Bangladesh

মিথ্যা ধর্ষণ মামলায় বাদী গ্রেফতার

 

 

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

 

সিরাজগঞ্জে যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে মিথ্যা ধর্ষণচেষ্টা মামলা দায়েরের পর বাদীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

বুধবার (৬ এপ্রিল) ভোর রাতে সদর থানা পুলিশ রায়গঞ্জ উপজেলার নিমগাছি এলাকায় বাদীর আত্মীয়র বাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতার মোছা. নাইস খাতুন (২৮) পৌর শহরের শাহাদত হোসেনের স্ত্রী। বিকালে আদালতের মাধ্যমে তাকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, গত বছরের ২৩ সেপ্টেম্বর নাইস খাতুন বাদী হয়ে সদর থানায় জানপুর মহল্লার ছাকমান হোসেনের ছেলে পৌর ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আকাশ সেখের (২৫) বিরুদ্ধে একটি ধর্ষণচেষ্টা মামলা দায়ের করেন।

মামলায় বাদী উল্লেখ করেন, আকাশ গত ২০ সেপ্টেম্বর বিকাল ৫টায় নাইস খাতুনের শয়ন ঘরে ঢুকে ধর্ষণের চেষ্টা করেন। মামলাটি সদর থানার উপ-পরিদর্শক আলিম হোসাইন তদন্ত শেষে গত ১৬ নভেম্বর আদালতের চূড়ান্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন। আদালতে মামলাটি মিথ্যা প্রমাণিত হয়।

এ অবস্থায় আকাশকে হয়রানি ও সম্মানহানি করায় বাদীর বিরুদ্ধে ২০০০ সালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা আলিম হোসাইন আদালতে আবেদন করে। পরে আদালত বাদীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেন। আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী এসআই আলিম হোসাইন বাদীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

বর্তমান মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই ফারুক হোসেন জানান, মিথ্যা মামলা প্রমাণিত এবং তার বিরুদ্ধে মামলা হবার পর থেকেই বাদী নাইস খাতুন পলাতক ছিল। রাতে রায়গঞ্জ থানার নিমগাছী এলাকায় অভিযান চালিয়ে নাইস খাতুনকে গ্রেফতার করা হয়। বিকালে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

ভুক্তভোগী যুবলীগ নেতা আকাশ সেখ জানান, শুধু মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি ও মান সম্মানের ক্ষতিই করে নাই, তার স্বামী শাহাদত হোসেন সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যে মারপিট করেছে। দীর্ঘদিন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলাম।

তিনি পুলিশ প্রশাসনকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, প্রশাসন সুষ্ঠু তদন্ত করায় সত্য উদঘাটিত হয়েছে এবং আমি মিথ্যা মামলার পাশাপাশি ধর্ষণের মতো নিকৃষ্ট কলঙ্কের বোঝা থেকে রক্ষা পেলাম।