Amar Praner Bangladesh

রাজধানীর উত্তরায় ভুয়া মুক্তিযোদ্ধাদের ছড়াছড়ি

 

প্রাণের বাংলাদেশ ডেস্ক :

 

১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করে যারা দেশকে স্বাধীন করেছে তারাই প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা। বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ ক্ষমতায় আসার পর মুক্তিযোদ্ধাদের সবচেয়ে বেশি সম্মান দেওয়া হয়েছে, দেওয়া হচ্ছে মাসিক ভাতা সহ অনেক সুবিধা। কিন্তু কিছু কু-চক্রী মহল রাজধানীর উত্তরা সহ দেশের বিভিন্ন প্রান্তে নিজেদেরকে মুক্তিযোদ্ধা দাবী করলেও প্রকৃত পক্ষে তারা কোন মুক্তিযোদ্ধাই নয়। এমনই বেশ কয়েকজন ভুয়া মুক্তিযোদ্ধার খোঁজ পাওয়া গেছে রাজধানীর উত্তরায়। দক্ষিণখান, উত্তরখান সহ বেশ কিছু জায়গায় এরা রয়েছে ঘাঁপটি মেরে।

এসব দুস্কৃতিকারীরা নিজেদেরকে বীর মুক্তিযোদ্ধা দাবী করার পাশাপাশি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নাম ব্যবহার করে তার মিথ্যা চেতনায় উদ্ভাসিত হয়ে বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষকে মুক্তিযোদ্ধার দাপট দেখিয়ে ফাঁয়দা লুটে আসছে। এসব লোকের নাম এবং তার গ্রামের বাড়ী, শহরের বাড়ী সহ সবকিছু মুক্তিযোদ্ধার তালিকায় যাচাই করেও কোন কিছু পাওয়া যায়না। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, তারা কোন মুক্তিযোদ্ধার ভাতাও পায়না। এদের মধ্যে কেউ কেউ অনুমতি বিহীন মিডিয়ার দোকান খুলেও বসে আছে। প্রচন্ড দাপট এবং বিশেষ শ্রেণির মহিলাদের দ্বারা বেষ্টিত এসব মুক্তিযোদ্ধারা কাউকে বিপদে ফেলতে সবসময় থাকে বেপরোয়া।

এ বিষয় নিয়ে মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রী আ.ক.ম মোজাম্মেল হকের সাথে কথা হলে তিনি জানান, আপনারা ভালো করে যাচাই করে তাদের ছবি ও নাম দিয়ে মুখোশ উন্মোচন করেন। ভুয়া মুক্তিযোদ্ধাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য আমার নির্দেশ রয়েছে সবসময়।

উত্তরায় ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা আছে এ বিষয় নিয়ে ঢাকা-১৮ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব হাবিব হাসানের সাথে আলাপ করলে তিনি বলেন, আমরা সবসময় ভুয়াদের বিপক্ষে, আপনারা যাচাই বাছাই করে ভুয়া মুক্তিযোদ্ধাদের সংবাদ প্রকাশ করলে মানুষ সচেতন হবে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সোনার বাংলায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উন্নয়নের সোপানে কোন ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা দুষ্টু লোকের স্থান নেই। সবাই আসবে আইনের আওতায়, এমনটাই দাবী সবার। আগে সোনার বাংলা পরে অন্যসব। সাধু সাবধান।