Amar Praner Bangladesh

রাজশাহীর গোদাগাড়ী ও তানোরকে উন্নয়নের সোপানে পরিণত করতে চান এমপি মনোনয়ন প্রত্যাশি গোলাম রাব্বানী

মনিরুল ইসলাম, রাজশাহী :

রাজশাহী-১ গোদাগাড়ী,তানোর আসনটি ১৯৯১ সালের জাতীয় নির্বাচনের পর থেকেই জেলার গুরুত্বপূর্ন একটি আসন হিসেবে ব্যপক আকারে পরিচিতি লাভ করে আসছে। এ নির্বাচনে বিএনপি মনোনীত ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে বিপুল ভোটে জয়লাভ করেন ব্যরিষ্টার আমিনুল হক। বর্তমানে এ আসনটির সাংসদ জেলা আ’লীগ সভাপতি ওমর ফারুক চৌধুরী। ২০০৮ সালে এ আসনটিতে প্রথম এমপি নির্বাচিত হন তিনি। এর পর থেকেই পাল্টে যায় তানোর-গোদাগাড়ীর রাজনীতি। একক অধিপত্য বিস্তারে মরিয়া হয়ে উঠে আ’লীগ ও যুবলীগ। প্রাথমিক অবস্থায় তেমন বুঝা না গেলেও দিনের পর দিন ক্ষমতাসীনদের বিভেদ প্রকটাকার ধারণ করে। যার ফলে এ আসনে আগামী সংসদ নির্বাচনে একাধিক নের্তৃবৃন্দ অংশ গ্রহনের জন্য ঘোষনা প্রদান করেন। বিভিন্ন্ সূত্র অনুযায়ী জানা যায়, জেলা আ’লীগ সাংসদ ফারুক চৌধুরীরর দাম্ভিকতা ও এতগুয়ে রাজনীতি সহ বিএনপি-জামাত পরিবারের একাধিক ব্যক্তিকে টাকা দিয়ে চাকুরী প্রদাণ করা  মানতে নারাজ সাংসদ রাব্বানী। যার প্রভাব পড়তে পারে আগামী নির্বাচনে বলেও জানা গেছে। এছাড়াও বর্তমান সংসদ সদস্য ফারুক চৌধুরীরর বিভিন্ন দূর্নীতির সন্ধান জানিয়েছেন অনেকে। শুধু তাই নয় কোন একটি কলেজ সরকারী করে দেবেন মর্মে প্রায় ১ কোটির উপর টাকা আতœসাত করেছেন মর্মে সুত্র মতে জানা গেছে।
বর্তমানে রাজশাহী -১ আসনে আ’লীগ থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশী তানোর উপজেলা আ’লীগের সভাপতি,পর পর দু’বার পাছুন্দর ইউপির সফল চেয়ারম্যন ও বর্তমান দু’বার মন্ডমালা পৌরসভার সফল নির্বাচিত মেয়র গোলাম রাব্বানীর সাথে সাংবাদিকদের কথা হলে তিনি জানান, আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনাকে মনোনয়ন দেওয়া হলে তিনি ওই দুই উপজেলাকে মডেল উপজেলা সহ সু-বিস্তির্ন এলাকার উন্নয়ন বয়ে আনবেন। তিনি আরো জানান, আমাদের বংশ পরম্পরায় প্রায় ১০০ বছর যাবৎ জনগনের খেদমত করে আসছি। আগামী দিনে যদি আমাকে মনোনয়ন প্রদাণ করা হয় তাহলে এলাকার মসজিদ,মন্দির ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান সহ সরকারী,বে-সরকারী সকল বিষয়ে সুনজর প্রদান করব।  শুধু তাই নয় , যারা যুদ্ধাপরাধী ,রাজাকার , জঙ্গীবাদের সাথে সম্পৃক্ত তাদেরকে তিনি কোন মতেই এলাকাতে কু-কর্ম করার সুযোগ দিবেননা। তার প্রতিপক্ষ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি জানান, বিভিন্ন জায়গায় ফারুক চৌধুরী বিভিন্ন দূর্নীতি করেছেন যা দলের ভাবমূর্তি নষ্ট করেছে। এছাড়াও  দলের তৃণমূল পর্যায় থেকে ফারুক চৌধুরীরর বিরুদ্ধে জনমনে ক্ষোভ দেখা গেছে। বর্তমান সময়ে একাধিক দলীয় নেতা কর্মীদের সাথে কথা হলে তিনারা জানান, আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আমরা রাব্বানীকে সংসদ সদস্য হিসেবে দেখতে চাই।