Amar Praner Bangladesh

রাজাপুরে দম্পতির রহস্যজনক মৃতদেহ উদ্ধার

 

 

ঝালকাঠী প্রতিনিধিঃ

 

ঝালকাঠির রাজাপুর উপজেলার সাতুরিয়া এলাকা থেকে এক দম্পতির রহস্যজনক মৃত্যুদেহ উদ্ধার করেছে রাজাপুর থানা পুলিশ। শনিবার (২০ আগষ্ট) বেলা ১১ টায় রাজাপুর থানা পুলিশ ঐ এলাকার চান্দের বাড়ি মহল্লার থেকে স্বামী মোঃ ফোরকান (৪৫) ও স্ত্রী মাহিনুর বেগম (৪০) নামের দম্পতির মরাদেহ মৃতের ছোটভাই রুবেলের অলিশান পাকা ভবন থেকে গেট ভেঙ্গে উদ্ধার করা হয়। এ সময়ে অসুস্থ অবস্থায় গৃহকর্তা রুবেলের স্ত্রী মাহফুজা (৩০), মেয়ে সারামনি (৫) ও মৃত দম্পতির ছেলে মাইনুল (১৪) কে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়া হয়েছে।

রাজাপুর হাসপাতালের জরুরী বিভাগ থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাদের বরিশালে শেবাচিমে পাঠানো হয়েছে। হাসপাতালের জরুরী বিভাগের কর্মরত চিকিৎসক ডাঃ আমির হোসেন জানিয়েছেন ঐ তিনজন আশংকামুক্ত রয়েছেন।

দুর্ঘটনার সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন ঝালকাঠির জেলা প্রশাসক মোঃ জোহর আলী, পুলিশ সুপার ফাতিহা ইয়াসমিন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নুসরাত জাহান খান, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. মাসুদ রানা সহ জেলা ও বিভাগীয় পুলিশের সিআইডি ইউনিট।

ঘটনাস্থল পরিদর্শনকালে স্বজনেরা জানিয়েছেন, ১৯ আগষ্ট শুক্রবার রাতে ভবনের তিনটি রুমে এরা সকলে ঘুমিয়ে ছিলো। শনিবার সকাল ১১ টা অবধি তারা কেউ ভবনের দরজা না খোলা এবং ফোন না ধরলে সন্দেহ দানা বাধে। এরপরে ছাদের গেট ভেঙ্গে ভেতরে প্রবেশ করে স্বজনেরা দম্পতির নিথর মৃতদেহ দেখতে পায় এবং অসুস্থদের উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায়। ভবনের দুইটি রুমে শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ যন্ত্রের (এসি) থাকলেও তার ইনডোর ও আউটডোর ইউনিট ছিলো অক্ষত। বৈদ্যুতিক সট সার্কিট কিংবা বিস্ফোরনের দৃশ্যমান কোন আলামত চোখে পরেনি। পুলিশ প্রাথমিক ভাবে ধারনা করছে এসি থেকে আর-২২ / আর-৪১০ গ্যাস নির্গত হয়ে এই পরিস্খিতি সৃষ্টি হয়েছে।

গ্যাস বিশেষজ্ঞরা জানান, এসিতে ব্যবহার করা হয় মনোক্লোরোডিফ্লুওরোমেথেন এইচসিএফসি – আর-২২ গ্যাস, কোনোটিতে ব্যবহার করা হয় আর-৪১০। এই দুই ধরনের গ্যাসের কোনোটিই আগুন জ্বলতে সহায়তা করে না। তবে আর-২২ গ্যাস আগুনের সংস্পর্শে এলে নিজের রূপ পাল্টে উৎপন্ন করে নতুন গ্যাস। এটি নিঃশ্বাসের সঙ্গে মানুষের শরীরে প্রবেশ করলে তীব্র যন্ত্রণার পাশাপাশি শ্বাসকষ্ট শুরু হয়। তবে ঐ ভবনে আগুন লাগার কোন আলামত দেখা যায়নি। আর-২২ গ্যাস আগুনে না পুড়েও যদি এই গ্যাস নিঃশ্বাসের সঙ্গে কারো শরীরে যায়, তাহলেও তার ক্ষতি হবে বলে জানিয়েছেন গ্যাস বিশেষজ্ঞরা।

এ বিষয়ে রাজাপুর থানার ওসি পুলক চন্দ্র রায় একজন আহতের বরাত দিয়ে জানান, প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে এসি বিস্ফোরন হলে গ্যাস নির্গত হয়ে ভিতরে অবস্থানরত ২ জন মারা যায় এবং ৩ জন জ্ঞান হারিয়ে ফেলে।

এ বিষয়ে তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। এখন পর্যন্ত ঘটনার বিষয়ে চুরান্ত ভাবে কিছু বলা যাচ্ছেনা। মৃতদের লাশ ময়না তদন্তের জন্য ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।