Amar Praner Bangladesh

লইয়ার্স ফ্রেন্ডস ক্লাবের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে সিডিএ . ছালাম ন্যায় বিচার নিশ্চিত করতে আইনজীবীদের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ  লইয়ার্স ফ্রেন্ডস ক্লাবের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান আবদুচ ছালামকে অভিনন্দন জানিয়ে বক্তারা বলেন, চট্টগ্রামের উন্নয়নে অসামান্য অবদান রাখার স্বীকৃতি স্বরূপ সমপ্রতি মাদার তেরেসা স্বর্ণপদকে ভূষিত করেছে বাংলাদেশ তথ্য ও মানবাধিকার ফাউন্ডেশন। মাদার তেরেসা পদক প্রাপ্তিতে আবদুচ ছালাম ও ফাউন্ডশনকে অভিনন্দিন জানায়। এই অর্জন শুধু ছালাম সাহেবের একার নয় এ অর্জন চট্টগ্রামবাসীর। চট্টগ্রামবাসী ছালাম সাহবের জন্য গর্বিত।
গতকাল সন্ধ্যায় নগরীর একটি কমিউনিটি সেন্টারে আইনজীবীদের সংগঠন লইয়ার্স ফ্রেন্ডস ক্লাবের প্রথম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপসি’ত ছিলেন চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান আবদুচ চালাম।

তিনি বলেন, আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় ও বিচার প্রার্থীদের ন্যায় নিশ্চিত করতে আইনজীবীদের ভূমিকা অনেক গুরুত্বপূর্ণ।
জনগণ যাতে ভোগানি-তে না পরে এবং নিরাপরাধী যাতে সাজাপ্রাপ্ত না হয় সেদিকে খেয়াল রাখার জন্য বিজ্ঞ আইনজীবিদের প্রতি অনুরোধ জানান। তিনি আরো বলেন, মানুষের কল্যাণে কাজ করতে চাইলে যেকোন অবস’ান থেকেই তা করা সম্ভব। সিডিএ চেয়ারম্যান এর দায়িত্ব নেয়ার পূর্বে অন্য সাধারন মানুষের মত আমিও কল্পনা করিনি এখানে এত কাজ করার সুযোগ রয়েছে। আমার কাজ করার মত একটা মন ছিল। তাই দায়িত্ব পেয়েই আমি পরিকল্পণা করে কিছু দুঃসাহসিক প্রকল্প সফলতার সাথে বাস-বায়ন করি। যা আজ দৃশ্যমান।

তিনি আরো বলেন, শীঘ্রই চট্টগ্রামের মূল সমস্যাগুলো সমাধান করা হবে। জলাবদ্ধতা নিরসন ও বিনিয়োগের ক্ষেত্রে অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টির লক্ষ্যে চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ উন্নয়ন প্রকল্প হাতে নিয়েছে। আগামী ডিসেম্বর ভেতরে সেই সুখবর চট্টগ্রামবাসী পাবে। বিশেষ করে লালখানবাজার থেকে এয়ারপোর্ট পর্যন- এলিভেডেট এক্সপ্রেসওয়ে, জোয়ার-ভাটার পানি নিয়ন্ত্রণের চট্টগ্রাম শহরের খালগুলোর মুখে স্লুইচ গেট নির্মাণ করার উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। এই মেগা প্রজেক্টটি বাস-বায়নে সরকারের সদিচ্ছার কথা ইতিমধ্যে জনগণ জেনেছে। আইজীবিরাও তাদের অবস’ান থেকে জণকল্যানে অসামান্য অবদান রাখতে পারেন। চট্টগ্রাম আদালতে আইনজীবিদের কাজের পরিবেশ উন্নয়নে সরকার ও সিডিএ অনেক কাজ করেছে। আগামীতেও এ ধারা অব্যাহত থাকবে।

সংগঠনের সভাপতি এডভোকেট সুদর্শন দেবের সভাপতিত্ব ও সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট মোহাম্মদ ইব্‌রাহীমের সঞ্চালনায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন সংগঠনের উদ্যোক্তা ও প্রতিষ্ঠাতা এডভোকেট আশরাফ হোসেন চৌধুরী রাজ্জাক। প্রধান বক্তা ছিলেন চিটাগাং চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি মাহবুবুল আলম। বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের সদস্য এডভোকেট মো. ইব্রাহীম হোসেন চৌধুরী (বাবুল), চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি এডভোকেট মুহাম্মদ দেলোয়ার হোসাইন চৌধুরী, জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি এডভোকেট মো. সালেহ উদ্দিন হায়দার সিদ্দিকী, জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এডভোকেট রতন কুমার রায়, সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট মোহাম্মদ আবু হানিফ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট মোহাম্মদ আব্দুর রশীদ, জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক স:সম্পাদক এডভোকেট মুহাম্মদ এনামুল হক, চট্টগ্রাম কর আইনজীবী সমিতির সভাপতি মোহাম্মদ মাহফুজুল হক মণি, কর আইনজীবী সমিতির সম্পাদক রুহুল আমিন।

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে সহস্রাধিক আইনজীবীদের উপসি’তিতে এক মিলনমেলায় পরিণত হয়। সংগঠনের এক বৎসর পূর্তি উপলক্ষে পথিকৃৎ নামে একটি স্মরণিকা প্রকাশ করা হয়। আলোচনা সভা শেষে নৈশভোজ ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান এবং র‌্যাফেল ড্র অনুষ্ঠিত হয়।