লা লিগা চ্যাম্পিয়ন রিয়াল মাদ্রিদ

 

স্পোর্টস ডেস্ক:

এক ম্যাচ হাতে রেখেই স্প্যানিশ ফুটবল লিগের শিরোপা জিতল রিয়াল মাদ্রিদ। লিগের ৩৭তম রাউন্ডের ম্যাচে ভিয়ারিয়ালকে ২-১ গোলে হারিয়ে শিরোপা জয় নিশ্চিত করেছে জিনেদিন জিদানের শিষ্যরা। এটি রিয়ালের ৩৪তম লিগ শিরোপা। দুই মৌসুম পর আবারও শিরোপা পুনরুদ্ধার করলো গ্যালাকটিকোরা।

৩৭ ম্যাচ থেকে ৮৬ পয়েন্ট সংগ্রহ করে রিয়ালের শিরোপা জয় নিশ্চিত হয়। সমান ম্যাচ থেকে রানার্স-আপ হওয়া বার্সেলোনার সংগ্রহ ৭৯ পয়েন্ট।

এই শিরোপার জন্য রিয়ালকে অপেক্ষা করতে হয়েছে দুই বছর। সবশেষ ২০১৬-১৭ মৌসুমে লা লিগার শিরোপা জিতেছিল তারা। এরপর টানা দুই মৌসুম আর শিরোপার দেখা পায়নি। অবশেষে আবার উৎসবের নগরীতে পরিণত হল মাদ্রিদ।

মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে লা লিগার এই মৌসুমটি আর মাঠে গড়াবে কিনা সেটা নিয়ে শঙ্কা দেখা দিয়েছিল। কিন্তু সব শঙ্কা কাটিয়ে আবার মাঠে ফেরে লিগ। করোনার লম্বা বিরতির পর দারুণ ছন্দে ফেরে রিয়াল। একের পর এক ম্যাচ জিতে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষস্থান দখলে নেয় পাকাপোক্তভাবে।

আক্রমণাত্মক শুরু করা রিয়াল প্রথম সাত মিনিটে ভালো দুটি আক্রমণ করে; তবে সাফল্য মেলেনি। তৃতীয় মিনিটে দানি কারভাহালের দুর্বল লবের চার মিনিট পর লুকা মদ্রিচও দুর্বল শট নেন। খানিক পর লক্ষ্যভ্রষ্ট শটে হতাশ করেন বেনজেমাও।

২৯তম মিনিটে গোলের দেখা পায় রিয়াল। মাঝমাঝে প্রতিপক্ষের পাস ধরে কাসিমিরো বাড়ান সামনে। মদ্রিচ বল ধরে একটু এগিয়ে ডান দিকে বাড়ান বেনজেমাকে। ডি-বক্সে জায়গা বানিয়ে কোনাকুনি শটে গোলরক্ষকের দুই পায়ের ফাঁক দিয়ে ঠিকানা খুঁজে নেন আসরের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ গোলদাতা।

২০০৯ সালে লিওঁ থেকে বের্নাবেউয়ে যোগ দেওয়া বেনজেমা এই প্রথম লা লিগায় টানা দুই মৌসুমে ২০ বা তার বেশি গোল করলেন। গত মৌসুমে করেছিলেন ২১টি।

দ্বিতীয়ার্ধের অষ্টম মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করার সম্ভাবনা জাগান কারভাহাল। তবে একজনকে কাটিয়ে তার নেওয়া শট রুখে দেন গোলরক্ষক সের্হিও আসেনহো।

৬৬তম মিনিটে বাঁ দিক দিয়ে ডি-বক্সে ঢুকে পড়া চাভি কিনতিয়াকে রুখতে ছুটে যান কোর্তোয়া। বল নিয়ন্ত্রণে নিলেও প্রতিপক্ষের ডিফেন্ডারের হাঁটুতে মাথায় আঘাত পান বেলজিয়ান গোলরক্ষক। তবে, মাঠেই প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে খেলা চালিয়ে যান তিনি।

৭৭তম মিনিটে ঘটনাহুল পেনাল্টি গোলে শিরোপা অনেকটাই নিশ্চিত করে ফেলেন বেনজেমা। রামোস ডি-বক্সে ফাউলের শিকার হলে পেনাল্টিটি পায় রিয়াল।