Amar Praner Bangladesh

শাহজাদপুরে ৩ মাসের অন্তঃসত্বা স্ত্রীকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যা

মাসুদ মোশাররফ, শাহজাদপুর (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি ঃ সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলার এনায়েতপুর থানাধীন খুকনি ইউনিয়নের রূপনাই গ্রামের তাঁত শ্রমিক আব্দুল খালেকের মেয়ে ৩ মাসের অন্তঃসত্বা সোনিয়া খাতুন (২০)কে গত মঙ্গলবার দুপুরে পারিবারিক কলহের জের ধরেতার পাষন্ড স্বামী তাঁত শ্রমিক জাহাঙ্গীর হোসেন(২৪) গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুনে পুড়িয়ে হত্যা করে। এ ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। তাকে প্রথমে এনায়েতপুর খাজা ইউনুস আলী মেডিকেল হাসপাতালে ভর্তি করা হলে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ঢাকায় স্থানান্তর করা হলেও অর্থাভাবে সিরাজগঞ্জ সদর হাসপাতালে নেয়া হয়। মঙ্গলবার রাতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোনিয়া খাতুন মারা যায়।

সোনিয়ার মামী তাসলিমা খাতুন ও ভাই ইউসুফ আলী জানান, পারিবারিক কলহের জেরে গত ৪দিন ধরে সোনিয়ার স্বামী শ্বশুর ও শাশুড়ি বেধরক মারপিট করে নির্যাতন করে আসছিল। এর এক পর্যায়ে গত সোমবার তার মামা- মামী উদ্ধার করে বাপের বাড়ি রূপনাই রেখে আসে। মঙ্গলবার সকালে জাহাঙ্গীর গোপন কথা বলার নাম করে মোবাইল ফোনে সোনিয়াকে ডেকে পাঠায়। দুপুরে সোনিয়াকে তার খামারগ্রামের মামার বাড়ি থেকে প্রায় ৫০ গজ দূরে চোহালী উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান লিয়াকত আলীর বাড়ির পাশের একটি নির্জন চেপা গলিতে ডেকে নিয়ে যায়। বোরকা পরিহিত সোনিয়ার সাথে তার স্বামী জাহাঙ্গীর কথা বলার এক পর্যায়ে গায়ে কেরোসিন ঢেলে দিয়ে আগুন ধরিয়ে দৌড়ে পালিয়ে যায়।এ সময় সোনিয়ার সমস্ত বোরকায় আগুন ছড়িয়ে পড়ে মুখ-মন্ডল, হাত-পা সহ শরীরের ৮০ ভাগ পুড়ে যায়। তার দুই চোখ আগুনে পুড়ে গলে যায়। নাক ও জিহ্বা ৮০ ভাগ ক্ষতিগ্রস্থ হয়। গত মঙ্গলবার রাতে সিরাজগঞ্জ সদর হাসপাতালে সোনিয়াকে নেয়া হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়।
সোনিয়ার নানা আব্দুর রউফ জানান, ২০১৪ সালে রূপনাই ছোনভিটা এলাকার তাঁত শ্রমিক আব্দুল খালেকের মেয়ে সোনিয়ার সাথে খামারগ্রামের গিয়াস উদ্দিনের তাঁত শ্রমিক ছেলে জাহাঙ্গীরের সঙ্গে প্রেম করে বিয়ে হয়। বিয়ের কিছুদিন পর থেকে সোনিয়াকে তার স্বামী জাহাঙ্গীর, শ্বশুর ও শাশুরি ছুতো কথায় মারপিট করে নির্যাতন করে আসছিল। এরই জের ধরে এদিন পরিকল্পিতভাবে সোনিয়াকে হত্যা করা হয়।
এ ব্যাপারে এনায়েতপুর থানার ওসি রাশেদুল ইসলাম বিশ্বাস বলেন, সোনিয়াকে দেখতে হাসপাতালে গিয়েছিলাম। থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। প্রধান আসামি স্বামী জাহাঙ্গীরসহ ঘটনার সাথে জড়িতদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।