রবিবার, ০৪ জুন ২০২৩, ০৭:৫৯ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
বহুল প্রচারিত দৈনিক ইত্তেফাক পত্রিকার স্বনামধন্য সম্পাদক তাসমিমা হোসেনের সাথে দৈনিক আমার প্রাণের বাংলাদেশ পত্রিকার সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মামুনের সৌজন্য সাক্ষাৎকার। ফুল ও ছবির অ্যালবাম উপহার পেয়ে তাসমিমা হোসেন অত্যন্ত খুশি হোন। এসময় উভয় পত্রিকার অনেক সাংবাদিক ও কলাকৌশলীরা উপস্থিত ছিলেন। সমসাময়িক দেশের রাজনীতি এবং দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতি সহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়। ছবি- প্রাণের বাংলাদেশ। পূবাইল প্রেসক্লাবের কমিটি গঠন গাজীপুরে অবৈধ গ্যাস সংযোগকারীদের কারনে গ্যাস সংকটে বৈধ গ্রাহকরা নারায়ণগঞ্জ রূপগঞ্জ এলাকার শীর্ষ সন্ত্রাসী মোশারফ বাহিনীর প্রধান মোশারফ অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার গার্মেন্টস শ্রমিকদের ন্যূনতম মজুরী ২৪ হাজার টাকা ঘোষনার দাবিতে র‍্যালি ও সমাবেশ গাজীপুরে বিদেশ পাঠানোর কথা বলে গৃহবধূকে ধর্ষণ  গুলশান-বনানীতে স্পা সিন্ডিকেটের পক্ষ নিয়ে প্রকৃত সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে ভিত্তিহীন সংবাদ প্রকাশে কারা আইন শৃঙ্খলা রক্ষার্থে নজরদারির লক্ষ্যে নব উদ্যোগ তজুমদ্দিন থানার চৌকস পুলিশ অফিসার ওসি মুরাদের তাহিদুল ইসলাম ঝন্টু জনগণের সমর্থন নিয়ে খালিশপুর ১২ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর হতে চায় অবশেষে সাংবাদিক লোকমান হোসেন ও রুহুল আমীন হাওলাদারের সৃষ্ট মামলা নিষ্পত্তি হলো রোয়েদাদ নামায়

শেরপুরের নকলায় কিশোরী ধর্ষণ মামলার আসামি ৭ বছর পর গ্রেফতার

Reporter Name
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ৩০ মার্চ, ২০২৩
  • ৩৬ Time View

 

 

মোঃ শামছুল হক, জেলা প্রতিনিধি শেরপুরঃ

 

শেরপুর জেলার নকলা থানাধীন চাঞ্চল্যকর কিশোরী অপহরণ ও ধর্ষণ মামলায় ০৭ বছর আত্মগোপনে থাকা ১৪ বছর সাজা এবং যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামিকে গাজীপুর জেলার শ্রীপুর থানাধীন এলাকা হতে গ্রেপ্তার করেছে (র‍্যাব-১৪)

কিশোরী একজন নাবালিকা স্কুল ছাত্রী।বাবা একজন প্রবাসী এবং মা মানসিক প্রতিবন্ধি,সেইসুবাদে তার বড় চাচা বাদী মোঃ বাদশা মিয়া (৪৫), পিতা-মৃত আশরাফ আলী, সাং-পশ্চিম টালকী, থানা-নকলা, জেলা-শেরপুর ভিকটিম এর দেখাশুনাসহ লেখাপড়া করাতেন।মেয়েটি স্কুলে যাতায়াতের পথে বিবাদী মোঃ রানা মিয়া অন্তর (৩৫),পিতা-মৃত রইছ উদ্দিন, সাং-পাঠাকাটা পূর্ব, থানা-নকলা, জেলা-শেরপুর অনেকদিন হতে মেয়েটিকে প্রেম নিবেদনসহ কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিলো।মেয়েটি বিষয়টি তার চাচাকে(বাদী)জানালে সে বিবাদীর অভিভাকদের নিকট বিষয়টি জানায়। কিন্তু অভিভাবকগণ উহা কর্ণপাত না করিয়া বিবাদীকে আরও উৎসাহিত করে। গত ০৭/০২/২০১৬ ইং তারিখে মেয়েটি স্কুল ছুটি শেষে বাড়ীর উদ্দেশ্যে রওনা হলে স্কুলের উত্তরে ফাঁকা জায়গায় পৌছা মাত্রই উৎপাতিয়া থাকা বিবাদীসহ অজ্ঞাত অরো ২/৩ জন মিলে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে মেয়েটিকে জোর পূর্বক সিএনজিতে করে অপহরণ করে অজ্ঞাতস্থানে নিয়ে যায়।

পরবর্তীতে বাদী নকলা থানায় হাজির হয়ে অভিযোগ দাখিল করলে অফিসার-ইন-চার্জ, নকলা থানার মামলা নং-০৪, তারিখঃ ১৩/০৩/২০১৬ ইং, ধারা-৭/৩০ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন/২০০০ সংশোধনী/০৩) রুজু করেন। মামলার তদন্তকারী অফিসার মামলা তদন্ত শেষে আসামীর বিরুদ্ধে ২০০০ সালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ৭/৯(১) ধারায় বিজ্ঞ আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

জনাব মোঃ আখতারুজ্জামান, বিজ্ঞ জেলা ও দায়রা জজ, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল, শেরপুর মহোদয় গত ২৩/০৯/২০২০ খ্রিস্টাব্দে আসামী মোঃ রানা মিয়া অন্তর (৩৫) এর বিরুদ্ধে ২০০০ সালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ৭ ধারায় অপরাধ সন্দেহাতীতভাবে প্রমান হওয়ায় আসামীকে ১৪ (চৌদ্দ) বৎসরের সশ্রম কারাদন্ড ও ২০,০০০/- টাকা অর্থদন্ড অনাদায়ে আরো ০৬ (ছয়) মাসের বিনাশ্রম এবং ২০০০ সালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ৯(১) ধারায় অপরাধ সন্দেহাতীতভাবে প্রমান হওয়ায় আসামীকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড ও ২০,০০০/- টাকা অর্থদন্ড অনাদায়ে ০৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ডে দন্ডিত করেন। মামলার ঘটনার পর থেকেই আসামী মোঃ রানা মিয়া অন্তর ৭ বছর দেশের বিভিন্ন স্থানে আত্মগোপনে ছিল।

বিভিন্ন তথ্য উপাত্ত সংগ্রহ ও বিশ্লেষণের মাধ্যমে জামালপুর ক্যাম্পের কোম্পানী কমান্ডার স্কোয়াড্রন লিডার আশিক উজ্জামান এর নেতৃত্বে এবং সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার এম এম সবুজ রানা এর উপস্থিতিতে র‍্যাবের একটি অভিযানিক দল বুধবার ২৯/০৩/২০২৩ ইং তারিখ আনুমানিক ২২:১০ ঘটিকায় গাজীপুর জেলার শ্রীপুর থানাধীন তেপির বাড়ী বাজার হতে আসামী মোঃ রানা মিয়া অন্তর (৩৫)কে আটক করে (র‍্যাব)

 

 

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category

এই সাইটের কোন লেখা কপি পেস্ট করা আইনত দন্ডনীয়