Amar Praner Bangladesh

সমৃদ্ধির অগ্রযাত্রায় বাংলাদেশ বিশ্বের বিস্ময়

   আলহাজ্ব মো.খসরু চৌধুরী:

 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সমৃদ্ধির অগ্রযাত্রায় বাংলাদেশকে সেই উচ্চতায় নিয়ে গেছেন, যা আজ বিশ্বের বিস্ময় বলে মন্তব্য করছেন এমনটাই দাবি বাংলাদেশের সকল সচেতন মানুষের। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার মধ্য দিয়ে এই জাতি আঁতুড়ঘরে পথ হারিয়েছিল। শেখ হাসিনা সেই জাতিকে আত্মবিশ্বাস ফিরিয়ে দিয়েছেন। তার সুযোগ্য নেতৃত্বে আমরা আমাদের হারিয়ে যাওয়া উজ্জ্বল দিন ফিরে পেয়েছি।

 

ঐতিহাসিক উদ্যানে হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের উদাক্ত আহ্বানে মুক্তির শপথ নিয়েছিলেন বাংলার মুক্তিকামী মানুষ, সেই প্রাঙ্গণে দাঁড়িয়ে অভিনন্দন জানাই উত্তাল সাগরে প্রগাঢ় অন্ধকারে বাঙালির বাতিঘর জননেত্রী শেখ হাসিনা আপনাকে। সমৃদ্ধির অগ্রযাত্রায় বাংলাদেশকে আপনি সেই উচ্চতায় নিয়ে গেছেন, যা আজ বিশ্বের বিস্ময়। সোনার বাংলা গড়ার প্রত্যয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অসমাপ্ত স্বপ্ন বাস্তবায়নে আপনি নিজের জীবনকে উৎসর্গ করেছেন। আগামী প্রজন্মের জন্য একটি সমৃদ্ধ দেশ নির্মাণের ব্রত নিয়ে সতর্ক প্রহরীর মতো আপনি জেগে থাকেন বলে বাংলাদেশ নিশ্চিন্তে ঘুমাতে পারে।

 

 

আপনি বলেছিলেন, এই মাটিতে যুদ্ধাপরাধী ও বঙ্গবন্ধুর খুনিদের বিচার হবে। কথা দিয়ে কথা রাখার রাজনৈতিক সংস্কৃতি আপনি ফিরিয়ে এনেছেন। আপনার দূরদৃষ্টিসম্পন্ন, সৎ-সাহসী বিদায় আজ বাংলাদেশ উদ্ভাসিত। জনগণ তাদের রায়ের মধ্য দিয়ে প্রমাণ দিয়েছেন তারা স্বাধীনতাবিরোধী-সাম্প্রদায়িকতামুক্ত বাংলাদেশের পক্ষে। আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বাঙালি বলে পরিচয় দিতে আজ আমরা অহংকার বোধ করি। দশ লাখের বেশি রোহিঙ্গা শরণার্থীকে আশ্রয় দিয়ে আপনি আজ ‘মাদার অব হিউম্যানিটি’ উপাধিতে ভূষিত।

 

বাংলাদেশকে আরো একটি নতুন শতাব্দীর উপযোগী করে গড়ে তোলার লক্ষ্যে আপনার গৃহিত ডেল্টা প্লান নতুন প্রজন্মকে আত্মবিশ্বাসী করেছে। আজ আপনি শুধুমাত্র একজন রাজনৈতিক নেতা নন, আপনার উচ্চতা আজ রাষ্ট্রনায়ক হিসেবে বিশ্ব নেতৃত্বের কাতারে। শেখ হাসিনার সুযোগ্য নেতৃত্বে আমরা হারিয়ে যাওয়া উজ্জ্বল দিন ফিরে পেয়েছি। কিন্তু বঙ্গবন্ধুকে হত্যার মধ্য দিয়ে একটি জাতি আঁতুড়ঘরে পথ হারিয়ে ফেলেছিল। শেখ হাসিনা সেই দেশ, সেই জাতিকে স্পর্ধিত সাহস, আত্মবিশ্বাস ফিরিয়ে দিয়েছেন। বিশ্বের বুকে আমরা আবার মাথা তুলে দাঁড়িয়েছি।