Amar Praner Bangladesh

সরকার কৃষি ও কৃষকদের ব্যাপারে অনেক বেশি আন্তরিক : শরীফ আশরাফ আলী

 

 

মোল্লা জাহাঙ্গীর আলম, রূপসা প্রতিনিধি :

 

কেন্দ্রীয় কৃষকলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি শরীফ আশরাফ আলী বলেছেন, সরকার কৃষি ও কৃষকদের ব্যাপারে অনেক বেশি আন্তরিক। কৃষকরা যেন ন্যায্য মূল্যে তাদের উৎপাদিত পণ্যের দাম পেতে পারেন, সেজন্য সরকার সকল ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে।

১৯৭২ সালের ১৯ এপ্রিল জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যুদ্ধবিধ্বস্ত স্বাধীন বাংলাদেশে কৃষক লীগ গঠন করেছিলেন।

১৯৮১ সালের কৃষকরত্ন শেখ হাসিনা স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের পর পিতার আদর্শকে ধারণ করে কৃষি ও কৃষকের কল্যাণে আবারো বাংলাদেশ কৃষক লীগকে পুনর্গঠন করেন।

১৯৮৪ সালের ১৫ জুন থেকে কৃষক লীগকে সাথে নিয়ে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি শুরু করেন শেখ হাসিনা।

১৯৮৯ সালের ৩০ অক্টোবর নরসিংদী রায়পুরায় কৃষক সমাবেশে শেখ হাসিনা ‘কৃষক বাঁচাও-দেশ বাঁচাও’ কৃষকের মুক্তির লক্ষ্যে ফসলের ন্যায্য মূল্য প্রাপ্তি, কৃষি উপকরণের সহজলভ্য, কৃষকের সার্টিফিকেট ঋণের মামলা প্রত্যাহারসহ ১১ দফা দাবি পেশ করেন।

তিনি আরো বলেন, ১৯৯৫ সালের মার্চ মাসে তৎকালীন খালেদা-নিজামী জোট সরকার সারের কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করে ১৮ জন কৃষককে গুলি কলে হত্যা করে।

কৃষক হত্যার প্রতিবাদে তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশ কৃষক লীগকে সাথে নিয়ে দুর্বার কৃষক আন্দোলন গড়ে তুলেন। সেই থেকে বাংলাদেশ কৃষক লীগ ১৫ মার্চ কৃষক হত্যা দিবস হিসেবে পালন করে আসছে।

সরকার দেশের জনগণের ভাগ্য উন্নয়নের জন্য পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে এবং তৃণমূল পর্যায়ের ও গ্রামীণ এলাকার মানুষ তাদের ভাগ্য পরিবর্তনের লক্ষ্যে গৃহীত সরকারের পদক্ষেপের সুফল পাচ্ছে।

রূপসা উপজেলা কৃষকলীগের ত্রী-বার্ষিক সম্মেলনে উপজেলা সদরে রবিবার(২৪জুলাই) বিকাল ৪টায় অনুষ্টিত সভায় একথা বলেন।

সম্মেলনে উদ্বোধন করেন জেলা কৃষকলীগের সভাপতি অধ‍্যাপক আশরাফুজ্জামান বাবুল।

বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন কৃষকলীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক অধ‍্যাপক নাজমুল ইসলাম পানু, সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক হালিমা রহমান, বিশেষ আলোকিত অতিথির বক্তৃতা করেন জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সুজিত অধিকারী,জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি এ‍্যাড: এম এম মুজিবুর রহমান, অধ্যাপক নিমাই চন্দ্র রায়, জেলা শ্রম বিষয়ক সম্পাদক মোজাফ্ফার মোল্লা, জেলা আওয়ামীলীগের সদস‍্য ফ ম আ:সালাম,জাহাঙ্গির হোসেন মুকুল, জামিল খান, শাহিনা আকতার লিপি,অমিও অধিকারী, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সরদার আবুল কাশেম ডাবলু।অনুষ্টানে প্রধান বক্তা ছিলেন জেলা কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক মানিকুজ্জামান অশোক।

উপজেলা কৃষকলীগের আহবায়ক আ:মান্নান শেখের সভাপতি ও যুগ্ম আহবায়ক ওয়াহিদুজ্জামান আরমান মিয়া ও আ: মান্নান (সামন্তসেনা)এর পরিচালনায় উপস্থিত ছিলেন জেলা কৃষকলীগ নেতা অ্যাডভোকেট আনোয়ার হোসেন, মনজিলুর রহমান, জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সদস‍্য আ:মজিদ ফকির, উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আরিফুর রহমান মোল্লা, মোরশেদুল আলম বাবু,শাহজাহান কবির প‍্যারিস, ভাইস চেয়ারম‍্যান ফারহানা আফরোজা মনা, সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম হাবিব, ইউপি চেয়ার‍ম‍্যান আলহাজ্ব ইসহাক সরদার, কামাল হোসেন বুলবুল, মোল্লা ওয়াহিদুজ্জামান মিজান, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক যুগ্ম আহবায়ক মোঃ মোতালেব হোসেন,উপজেলা আওয়ামীলীগের দপ্তর সম্পাদক আকতার ফারুক, জেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এবিএম কামরুজ্জামান, এমপি সালাম মূশের্দীর প্রধান সমন্বয়কারী নোমান ওসমানী রীচি,

ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি রবিউল ইসলাম বিশ্বাস, মনিরুজ্জান মনি, মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তাক, সাধারণ সম্পাদক সরদার মিজানুর রহমান,বিনয় হালদার, যুব মহিলালীগের সাধারণ সম্পাদক শারমিন সুলতানা রুনা, মহাসিন পাইক, স ম জাহাঙ্গির, স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি রুহুল আমিন রবি, সাধারণ সম্পাদক রাজিব দাস, যুবলীগের সাইদুর সগীর,সুব্রত বাগচী, আশিষ রায়, সরদার জসিম, আবুল কালাম আজাদ, রবিউল ইসলাম, তারেক আজিজ, এম শাহনেওয়াজ কবির টিংকু, রতন মন্ডল, মিঠু মুন্সী,কৃষকলীগের মাহমুদুল হাসান শামীম, মো:রহমত শেখ, আজিজুল মোল্লা, নাহিদ জামান, জিয়া উদ্দিন, জয়দেব সরকার, এস এম তারেক, হারুন অর রশিদ, আকরাম হোসেন প্রমূখ।