Amar Praner Bangladesh

সাতক্ষীরায় স্থায়ী বেড়িবাঁধের দাবিতে উপকূলীয় শিক্ষার্থীদের

 

 

মীর আববকরঃ

 

সাতক্ষীরায় জেলায় উপকূলীয় অঞ্চল আশাশুনি প্রতাপনগর ২০ মে ২০২০ ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের আঘাত হানে।উপকূলের বিভিন্ন এলাকায় ভেঙে হাজার হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়ে।ঘরবাড়ি,কৃষি ফসল, মৎস্য ঘের, গবাদি পশু,ব্যাপক ক্ষতি হয়।সমগ্র প্রতাপনগর ধ্বংসস্তুপে পরিনত হয়।দীর্ঘ বাঁধ নির্মাণ না হওয়ায় লোকালয়ে খাল উঠে বসতবাড়ি নদীগভে হারিয়ে যায়।

বহু পরিবার উদ্বাস্তু হয়ে বাঁধের উপর বসবাস করছে।তাদের উল্ল্যেখযোগ্য কোন সরকারি সহায়তা বা ক্ষতিপূরণ দেওয়া হয়নি।গতকাল বেলা ১১ টায় জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে মানববন্ধনে উপকূলীয় শিক্ষার্থীরা এসব কথা বলেন।খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী হুজাইফা আল- আমিনের সঞ্চালনায় বক্তারা আরো বলেন, বাংলাদেশ উন্নায়নের মহাসড়কে পরিনত হয়েছে।দেশে কোটি কোটি টাকার প্রজেক্ট হচ্ছে কিন্তু উপকূলের মানুষের জন্য স্থায়ী একটি বাঁধ হচ্ছে না।শতশত মানুষ নদীর জোয়ার বসতভিটা হারিয়ে খোলা আকাশের নিচে মানবতার জীবন যাপন করছে।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের গাফিলাতিতে বানভাসি মানুষ লোনা পানি মুক্তো হতে পারেনি। বক্তারা দ্রুত পানি মুক্তো ও টেকসই ভেড়ি বাঁধ নির্মাণের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, সরকারের উদ্ধতন কর্মকর্তা,জেলা প্রশাসক ও পানি উন্নয়ন বোর্ডের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।মানববন্ধনে সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন,সাতক্ষীরা প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ আলী সুজন,সিনিয়র সাংবাদিক বীর মুক্তিযোদ্ধা কাজী নাছির উদ্দীন,সাংবাদিক মীর আবু বকর,মশিউর রহমান ফিরোজ, মাসুম বিল্লাহ,যুব ইউনিয়ন জেলার আহবায়ক জামসেদ হাসান জিকু,বাংলাদেশ দূতাবাস কাতার এর সাবেক আইন কর্মকর্তা নাজমুল ইসলাম, সাতক্ষীরা জর্জ কোটের আইনজীবী এড আসাদুল্লাহ আসাদ।শিক্ষার্থীদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন,হিজবুল্লাহ শরিফ, নাসির মাহমুদ,মিয়ারাজ হোসেন, এসময় বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।