মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৯:৫৩ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
চুরির ঘটনায় হয় না তদন্ত, ধরা পড়েনা চোর টাঙ্গাইলে অন্যের ভূমিতে আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর নির্মাণের অভিযোগ! নড়াইল লোহাগড়া উপজেলা দুই সন্তানের জননীকে গলা কেটে হত্যা উত্তরার সুন্দরী মক্ষিরাণী তন্নি অনলাইনে চালাচ্ছে দেহ ব্যবসা মিরপুর এক নাম্বারের ফুটপাত থেকে কবিরের লাখ লাখ টাকা চাঁদাবাজি নাম ঠিকানা লিখতে পারেনা সাংবাদিকে দেশ সয়লাব গ্যাস ও বিদ্যুতের অতিরিক্ত দাম নিয়ে সংসারের হিসাব সমন্বয় করতে গলদঘর্ম দেশবাসী ভারত থেকে চুয়াডাঙ্গার বিভিন্ন পথে প্রবেশ করছে মাদক ৮০টি পরিবারের চলাচলের পথ বন্ধ করার প্রতিবাদে এলাকাবাসীর মানববন্ধন অর্থ ও ভূমি আত্মসাৎ এ সিদ্ধহস্থ চুয়াডাঙ্গার প্রতারক বাচ্চু মিয়া নির্লজ্জ ও বেপরোয়া

সাদা মনের মানুষ এম রেজাউল করিম চৌধুরী

Reporter Name
  • Update Time : মঙ্গলবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৭
  • ৬১ Time View

মীর আলাউদ্দিন ঃ

অসহায় মানুষের ডাকে যিনি ঘরে বসে থাকতে পারেন না,গরিব দূ:খী মানুষের কষ্টে যিনি ব্যাথিত হন সে রকমই এক জন মানুষ চট্টগ্রামের এম রেজাউল করিম চৌধুরী। এলাকার গরিব দূঃখী অসহায় মানুষের জন্য তিনি নিবেদিত প্রাণ হয়ে কাজ করেন। এলাবাসী ও তার মত একজন জন দরদী,সমাজ সেবক, সহজ সরল সাদা মনের মানুষ পেয়ে গর্বিত। তাদের সুখে দূঃখে সব সময় পাশে পান তাদের এই প্রাণ প্রিয় এই মানুষটিকে। তিনি যেমন মানুষের কষ্টে কাদেন তেমনি অন্যায় অত্যাচার দেখলে বজ্র কন্ঠে তা প্রতিহত করার চেষ্টা করেন। এম রেজাউল করিম চৌধুরী শুধু যে এলাকার মানুষের কাছেই জনপ্রিয় তা নয় রাজনৈতিক অঙ্গনেও তিনি একজন বেশ জনপ্রিয় আওয়ামীলীগ নেতা, বঙ্গবন্ধুর আর্দশের সৈনিক। সার্বক্ষনিক নেতা কর্মীদের খোজ খবর রাখেন। নেতা কর্মীদের বিভিন্ন বিপদে আপদে সবার আগে পাশে পান তাদের এই প্রান প্রিয় নেতা এম রেজাউল করিম চৌধুরীকে। মুক্তিযুদ্ধো থেকে শুরু করে নানা উন্নয়ন মূলক কর্মকান্ডের পক্ষে ও দেশের বিভিন্ন অন্যায় অপরাধ মূলক কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে তিনি সক্রিয় ভূমিকা পালন করেছেন। তাই এম রেজাউল করিম এর মত একজন নেতাকে পাশে পেয়ে নেতা কর্মীরাও আনন্দিত।  রেজাউল করিম  ১৯৫৩ সালের ৩১ মে চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী প্রচীন জমিদার পরিবার বহরদার বাড়িতে জন্ম গ্রহন করেন। তিনি ১৯৮৬ সালে সরকারি মুসলিম হাই স্কুল থেকে এস এস সি পাস করেন। পড়াশোনার পাশাপাশি যোগ দেন পূর্ব পাকিস্থান ছাত্রলীগে। ১৯৬৯ সালে চট্টগ্রাম কলেজ ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নির্বাচিত হন। ১৯৭০ সালে ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক নির্বাচিত হন। মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ ১৯৭১, সভাপতি চট্টগ্রাম কলেজ ছ্ত্রালীগ ১৯৭২-১৯৭৬, দপ্তর সম্পাদক চট্টগ্রাম উত্তর জেলা ছাত্রলীগ ১৯৭২-১৯৭৩, সাংগঠনিক সম্পাদক ১৯৭৩-১৯৭৫, সাধারণ সম্পাদক ১৯৭৬-১৯৭৮, আহ্বায়ক চট্টগ্রাম উত্তর জেলা ছাত্রলীগ আহ্বায়ক কমিটি ১৯৭৮। চট্টগ্রাম মহানগর যুবলীগের কার্যকরী কমিটির সদস্য, চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামিলীগের সদস্য, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক ১৯৯৭-২০০৬, সাংগঠনিত সম্পাদক ২০০৬-২০১৪, বর্তমান যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক ও চট্টগ্রাম নাগরিক আন্দোলনের আহ্বায়ক। চট্টগ্রাম উন্নয়নের দাবিতে গঠিত চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদ ও চট্টগ্রামের দুঃখ নামে খ্যাত চাকতাই খাল খনন সংগ্রাম কমিটিরি অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান। ব্যক্তিগত জীবনে তিনি অত্যন্ত বন্ধুসুলভ মিষ্টিভাষীর অধিকারী, স্ত্রী সেলিনা আক্তার, মেয়ে তানজিনা শারমিন নিপুন (শিক্ষক, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়), মেয়ে ছাবিহা তাসনিম তানিম (বি.বি.এ), ছেলে ইমরান রেজা চৌধুরী (ইঞ্জিনিয়ার)।বাংলা ও বাঙ্গালীর সুদীর্ঘ ইতিহাসের পথ চলায়, বাঙ্গালী জাতি সত্ত¦ার উদ্ভব ও বিকাশে প্রয়োগিক প্রক্রিয়ার প্রভাহমান ধারায় অসংখ্য বাঁক বদল করেছে। ইতিহাসের চড়াই উৎড়াই পাড়ি দিয়ে আজ আমরা স্বাধীন ও গর্বিত জাতি হিসেবে বিশ্ব দরবারে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছি। এই অর্জন খুব সহজে আসেনি। রক্ত, ঘাম, আতœত্যাগ, নিষ্ঠা, দুর্জয় দেশপ্রেমের মিশ্রনে তৈরি কংক্রিটের ভিতের উপর ভর করে গড়ে উঠেছে। যারা কংক্রিটের মসলা জোগান দিয়েছে তাদের অনেকেই আমাদের মাঝে নেই। ঝরে গেছে সময়ের বৃত্ত থেকে। ইতিহাসের বাক বদলে , স্বাধীন সার্বভৌম বংলাদেশের ভিত্তি নির্মাণে এদের অবদান শব্দের মালায় সাজানো সহজ নয়। একান্ত সাক্ষাতকারে দৈনিক আমার প্রাণের বাংলাদেশ।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category

এই সাইটের কোন লেখা কপি পেস্ট করা আইনত দন্ডনীয়