Amar Praner Bangladesh

সাভারে এক মুক্তিযোদ্ধার মেয়ের জামাইকে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা

 

 

মোর্শেদ আলী মারুফ :

 

সাভারের ভাকুর্তায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে এক অটোরিক্সা চালককে কুপিয়েছে দুর্বৃত্তরা। গুরুতর আহত অটোরিক্সা চালক বর্তমানে সাভার এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছে। এঘটনায় সাভার মডেল থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

গত শনিবার(২০ আগস্ট) সন্ধ্যায় ভাকুর্তা ইউনিয়নের নলাগড়িয়া (তিন রাস্তার মোড়ে) এহামলার ঘটনা ঘটে,ঘটনার পর থেকে পলাতক রয়েছে অভিযুক্ত আমিরুল ইসলাম ।

অভিযুক্তরা হল, ভাকুর্তা ইউনিয়নের নলাগড়িয়া গ্রামের মৃত আব্দুল আলীর ছেলে মোঃ আমিরুল ইসলাম(৩০), চাইরা গ্রামের মোঃ মজিবুরের ছেলে মোঃ হযরত আলী(৩২) ও অজ্ঞাতনামা ২-৩ জন। ভুক্তভোগী রিক্সাচালক চাইরা গ্রামের বাচ্চু মিয়ার ছেলে মোঃ ডালিম হোসেন (৩৫)।

মামলার এজাহার থেকে জানা যায়, শনিবার দুজন যাত্রী নিয়ে যাচ্ছিলেন ভুক্তভোগী ডালিম হোসেন । তখন পথিমধ্যে ওঁতপেতে থাকা অভিযুক্তরা ভুক্তভোগীর গতিরোধ করে।

আমিরুল ইসলাম চাপাতি দিয়ে ডালিমের মাথায় কোপ দেয়ার চেষ্টা করলে সে হাত দিয়ে আটকায়। এতে ডালিমের হাতে ক্ষতসহ হাড়ভাঙ্গা জখম হয়। পরে প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে অভিযুক্তরা পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করেছেন ডালিমের দুলাভাই জহুরুল ইসলাম।

ভুক্তভোগীর পরিবারের সাথে কথা বলে জানা যায়, এর আগে অভিযুক্তদের সাথে বিরোধ ছিল। তবে এ বিষয় নিয়ে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে মীমাংসাও করা হয়েছে। তবুও হঠাৎ করে এ হামলার ঘটনা ঘটায় তারা।

ডালিমের শ্বশুর বীর মুক্তিযোদ্ধা হযরত আলী বলেন, আমরা এর বিচার চাই। আমাকেও হামলা কারীরা হুমকি প্রদান করে।
আমার মেয়ের জামাইকে আমিনুলের শ্বশুর মুজিবুর রহমান বিকেল বেলা হুমকি দেন। পরে আমার মেয়ের জামাই রাতের বেলা অটো রিকশা নিয়ে যাচ্ছিল নলাগড়িয়া ২-৩ জন যাত্রীসহ হঠাৎ করে একটি নির্জন জায়গায় আমার মেয়ের জামাই ডালিমকে এলো-পাতাড়ি ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত শুরু করে, আমিনুল বলে তুই আমার শ্বশুরের কাছে কি কইছোস তোর আজকে মাইরা ফেলামু।

ওই ঘটনায় আমিনুল ইসলাম (৩০) সহ আরো ৪ জনের বিরুদ্ধে সাভার মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলার বিষয়ে নিশ্চিত করে সাভার মডেল থানার ভাকুর্তা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই আসওয়াদুর রহমান বলেন, আমরা আসামী ধরার জন্য খুব চেষ্টা করছি খুব দ্রুতই আসামিদের আইনের আওতায় এনে আদালতে প্রেরণ করা হবে।