Amar Praner Bangladesh

স্ত্রীকে খুন করে থানায় আত্মসমর্পণ

 

 

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ

 

রংপুরের পীরগাছা উপজেলায় স্ত্রীকে খুন করে থানায় আত্মসমর্পণ করেছেন স্বামী মাঈনুদ্দিন (৩৬)।

স্ত্রী আয়েশা বেগম (৩৫) অন্য একটি ছেলের সঙ্গে পরকীয়া সম্পর্কে জড়িত সন্দেহে স্বামী তাকে হত্যা করেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

শুক্রবার (৩ জুন) ভোরে পীরগাছা উপজেলার অন্নদানগর ইউনিয়নের খামার নয়াবাড়ী এলাকায় এ খুন সংঘটিত হয়। ঘটনার পর সকাল ৭ টার দিকে থানায় এসে আত্মসমর্পণ করেন স্বামী মাঈনুদ্দিন।

মাঈনুদ্দিন একই এলাকার বশির উদ্দিনের ছেলে। নিহত আয়েশা বেগম একই গ্রামের আজিজুল হকের মেয়ে।

রংপুর জেলা পুলিশের সহকারী পুলিশ সুপার আশরাফুল আলম পলাশ জানান, আজ (শুক্রবার) সকাল ৭টার দিকে মাঈনুদ্দীন থানায় এসে আত্মসমর্পণ করে খুনের কথা স্বীকার করেন। তার এই অপরাধের জন্য তিনি প্রাথমিক জবানবন্দিতে সর্বোচ্চ শাস্তি পেতে রাজি আছেন বলে পুলিশকে জানিয়েছেন।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, গত দুই বছর ধরে স্ত্রী আয়েশার সঙ্গে অন্য একটি ছেলের পরকীয়া সম্পর্কের অভিযোগে স্বামী-স্ত্রীর মাঝে প্রায়ই ঝগড়াঝাঁটি হতো। গতকাল (বৃহস্পতিবার) রাতে বিষয়টি নিয়ে তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে স্ত্রী আয়েশা বেগমকে শয়ন কক্ষে শাবল দিয়ে খুন করে লাশ বাসায় রেখে থানায় গিয়ে আত্মসমর্পণ করেন মাঈনুদ্দিন।

পীরগাছা থানার ওসি সরেশ চন্দ্র বলেন, এটি পরকীয়ার কারণে খুন নাকি অন্য কারণে, তদন্তের পর তা জানা যাবে। তবে মাইনুদ্দীনের দাবি, পরকীয়ার কারণে তিনি স্ত্রীকে হত্যা করেছেন।

সহকারী পুলিশ সুপার আশরাফুল আলম পলাশ বলেন, প্রাথমিকভাবে ঘটনার সত্যতা পেয়েছি। পুরো বিষয়টি নিয়ে তদন্ত চলছে। মাঈনুদ্দিন নামের ওই ব্যক্তি থানায় গ্রেপ্তার অবস্থায় রয়েছে। ঘটনার সঙ্গে অন্য কেউ জড়িত আছে কি না তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।