Amar Praner Bangladesh

হত্যা মামলার আসামি ৩২ বছর পরে গ্রেফতার

 

মোমিনুল ইসলামঃ

 

জামালপুরের মেলান্দহের কোনামালঞ্চ এলাকার সুরুজ আলী হত্যা মামলার সাঁজাপ্রাপ্ত পালাতক আসামি আজিজুল হক (৭২) কে ৩২বছর পর গ্রেফতার করেছে জামালপুর র‍্যাব-১৪।

শনিবার (১০সেপ্টেম্বর) বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে ঢাকা জেলার আশুলিয়া বাইপাইল পশ্চিমপাড়া থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। আসামি আজিজুল হক মেলান্দহ উপজেলার কোনামালঞ্চ এলাকার মৃত শুকুর আলীর ছেলে।

জামালপুর র‌্যাব-১৪, সিপিসি-১, কোম্পানী কমান্ডার স্কোয়াড্রন লিডার আশিক উজ্জামান শনিবার (১০সেপ্টেম্বর) রাত ১২টার দিকে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানান, ৩২বছর আগে (১৯৯০সালে) উপজেলার কোনামালঞ্চ এলাকার সুরুজ আলীর সাথে ওই এলাকার মো.জাবেদ আলীর পারিবারিক দ্বন্দ চলে আসছিলো। সেই দ্বন্দের এক পর্যায়ে মারামারি হয়। সেই সময় আজিজুল হকের বাঁশের লাঠির আঘাতে সুরুজ আলী আহত হয়। পরে তাকে পরিবারের লোকজন উদ্ধার করে স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেয়।

আহত সুরুজ আলীকে উন্নত চিকিৎসার জন্য জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে নেয়ার পথে তিনি মারা যায়। এ ঘটনায় নিহত সুরুজ আলীর স্ত্রীর বড় ভাই ১৯৯০সালের ১৭অক্টোবরে মেলান্দহ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এ হত্যাকান্ডের পর থেকেই আসামি ছদ্মবেশ ধারণ করে দেশের বিভিন্ন এলাকায় আত্মগোপনে থাকেন। এ মামলার রায়ে আসামি আজিজুল হকের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হয়।

এ ঘটনায় র‍্যাব সদস্যরা পালাতক আসামি আজিজুল হকের বিভিন্ন তথ্য উপাত্ত সংগ্রহ ও বিশ্লেষণের মাধ্যমে তাকে চিহ্নিত করেন।

জামালপুর র‍্যাবের সদস্যরা হত্যা মামলায় সাঁজাপ্রাপ্ত পালাতক আসামীর অবস্থান সনাক্ত করে তাকে গ্রেফতার করেন। পরে তাকে মেলান্দহ থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। তিনি আরও বলেন, এ ধরণের অপরাধের বিরুদ্ধে র‌্যাবের অভিযান অব্যাহত থাকবে।