Amar Praner Bangladesh

৬ষ্ঠ দিনেও সর্বাত্মক লকডাউন, মাঠে কঠোর অবস্থানে কুষ্টিয়া জেলা পুলিশ

 

 

৬ষ্ঠ দিনেও কুষ্টিয়ায় সর্বাত্মক লকডাউন বাস্তবায়নের লক্ষ্যে বরাবরের মতই জেলা পুলিশের মটর শোভাযাত্রা র‌্যালির মাধ্যেমে কঠোর লকডাউন, সঠিক নিয়মে মাস্ক পরা ও সচেতনামূলক কার্যক্রমের উদ্দেশ্যে মাঠেই অবস্থান করছে জেলা পুলিশ, কুষ্টিয়া।”

 

সোহেল পারভেজ, কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধি :

 

মূলত বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা আশংকাজনক হারে বৃদ্ধি পাওয়ায় ও বর্তমানে ডেল্টা ভেরিয়েন্টের সংক্রমণ মোকাবেলায় গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক ঘোষিত দেশব্যাপী সর্বাত্বক লক ডাউন বাস্তবায়নে অদ্য ০৬ জুলাই ২০২১ খ্রিঃ তারিখ জেলা পুলিশ কুষ্টিয়ার আয়োজনে স্বাস্হ্যবিধি মেনে জনসচেতনতার জন্য বিভিন্ন শ্লোগানে ব্যানার সজ্জিত গাড়ীবহর এবং সুসজ্জিত বাদকদলসহ এক শোভাযাত্রা কুষ্টিয়া পুলিশ লাইন্স হইতে বাহির হইয়া মজমপুর গেট, থানা মোড়, সিঙ্গার মোড়, বড় বাজার রেলগেট, ছয় রাস্তার মোড়, হরিপুর ব্রীজ,মজমপুর গেট, এবং চৌড়হাস প্রদক্ষিণ করে পুনঃরায় পুলিশ সুপারের কার্যালয় পৌছাইয়া শেষ হয়।

করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণের ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা নিয়ন্ত্রণে সরকার ঘোষিত ০১ জুলাই, ২০২১ খ্রিঃ তারিখ সকাল ৬টা হইতে ১৪ জুলাই, ২০২১ খ্রিঃ তারিখ মধ্যরাত পর্যন্ত কঠোর লকডাউন বাস্তবায়নের ৬ষ্ঠ দিনে কুষ্টিয়া জেলার সাত থানার সীমান্তবর্তী ও শহরের চেকপোস্টে কঠোর ভাবে পুলিশি নজরদারী থাকায় আন্তঃজেলা ও আভ্যন্তরীণ সড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ ছিল। এসময় জেলা পুলিশের বাদক দলের বাদ্যের তালে তালে করোনা সচেতনতামুলক অডিও প্রচার করা হয়। এ শোভাযাত্রার উদ্দেশ্য শুধুই জনগনকে অদৃশ্যশক্তি মরণঘাতি করোনা ভাইরাস সম্পর্কে সচেতন করা। সামনে থেকে করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধ করছে জন্মযোদ্ধা বাংলাদেশ পুলিশ তথা জেলা পুলিশ কুষ্টিয়া এবং ঘরে অবস্থান করে এই যুদ্ধে অংশ করবে জনগণ।পুলিশ সুপার, কুষ্টিয়া মহোদয় লকডাউন বাস্তবায়নের জন্য সুশীল সমাজসহ সমাজের সর্বস্তরের মানুষ, প্রিন্ট এবং ইলেকট্রিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দের গুরুত্বপূর্ন ভুমিকার কথা উল্রেক করেন। বৈশ্বিক মহামারি করোনাকালীণ সবাইকে সরকার কর্তৃক আরোপিত বিধি নিষেধ প্রতিপালন পূর্বক পুলিশকে সাহায্য করার জন্য আহবান জানান।

চলমান লকডাউন ব্যক্তি সার্থে নয়, জনগনের কল্যাণের জন্য।সারাদেশে মহামারি করোনা ভাইরাসের সংক্রমন দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে।মহামারি করোনা ভাইরাসের সংক্রমন প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে মাস্ক পরার বিকল্প নেই।সবাই সচেতন হয়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে মাস্ক পরুন।অকারনে বাইরে ঘোরাফেরা না করে সবাই নিজ নিজ ঘরে অবস্থান করে মহামারি করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ যুদ্ধ চালিয়ে যান।সবাই নিজ নিজ অবস্থানে থেকে এই অদৃশ্য শক্তির মোকাবেলা করতে হবে। চলমান পরিস্থিতিতে কেহ বিধি-নিষেধ অমান্য করলে তার বিরুদ্ধে বিধি মোতাবেক আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে মর্মে পুলিশ সুপার মহোদয় দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

লকডাইন বাস্তবায়ন শোভাযাত্রায় আরো উপস্থিত ছিলেন জনাব মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ), জনাব মোঃ ফরহাদ হোসেন খাঁন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (জেলা বিশেষ শাখা), জনাব মোঃ রাজিবুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(সদর), জনাব আতিকুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল), অফিসার ইনচার্জ, কুষ্টিয়া মডেল থানা, কুষ্টিয়া ট্রাফিক শাখা, কুষ্টিয়াসহ জেলা গোয়েন্দা শাখার অফিসার ফোর্সগণ।